কলকাতা: আর বেঁচে থাকার ইচ্ছে নেই বলে গতমাসেই জানিয়েছিলেন। এবার গুরুতর অসুস্থতার কারণে তাচকে ভরতি করা হল হাসপাতালে।

আলোচিত ব্যক্তির নাম সুদীপ সেন। তার সারদা সংস্থা সারদার কারণে শিরোনামে উঠে এসেছেন বহু রাজনৈতিক ব্যক্তি। ২০১৩ সালে রাজ্যের পঞ্চায়েত, ২০১৪ সালে দেশের লোকসভা এবং ২০১৬ সালে রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের অন্যতম প্রধান ইস্যু ছিল সারদা কেলেঙ্কারি। ২০১৯ সালেও ঘুরেফিরে উঠে আসছে সেই কেলেঙ্কারির কথা।

চলতি বছরের মার্চ মাসে বারাসতে সিবিআইয়ের বিশেষ আদালতে হাজিরা দিতে এসে কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি। এমনকী কাঁদতে কাঁদতে বলেন, বেঁচে থাকার ইচ্ছে নেই, এখন মৃত্যুর অপেক্ষায় দিন গুনছেন তিনি।

সেই সারদা কর্তার এখন বেজায় অসুখ। জানা গিয়েছে, তার মলদ্বারে ফড়া হয়েছে। যার কারণে গত কয়েকদিন ধরে তীব্র যন্ত্রণায় ভুগছে সে। ২০১৩ সাল থেকেই জেলে বন্দি রয়েছে সারদা কর্তা সুদীপ্ত। কিন্তু জেলের হাসপাতালে তার চিকিৎসা সম্ভব নয়।

সেই কারণে তাঁকে এসএসকেএম হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে। সোমবার সন্ধ্যার দিকে তাঁকে ওই হাসপাতালের সার্জারি বিভাগে ভরতি করা হয়েছে। চিকিৎসকরা অ্যকুউট ইনফেকশন থেকে সেপটিকের আশঙ্কা রয়েছে বলে মনে করছেন চিকিৎসকেরা। চলতি সপ্তাহেই তার মলদ্বারে অস্ত্রোপচার করা হবে। খুব সম্ভবত মঙ্গল বা বুধবার হবে সুদীপ্ত সেনের মলদ্বারের অস্ত্রোপচার।