নয়াদিল্লি: তাঁর দলে না থাকা নিয়ে সম্প্রতি নির্বাচক কমিটিকে একহাত নিয়েছিলেন হরভজন। অবিলম্বে নির্বাচক কমিটিতে বদলের দাবিও জানিয়েছিলেন ‘টার্বুনেটর’। হরভজন সোচ্চার হওয়ার দিনদু’য়েকের মধ্যেই জাতীয় দলের দরজা খুলে গেল সঞ্জু স্যামসনের। সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফিতে হাঁটুতে আঘাত পাওয়া ধাওয়ানের পরিবর্ত হিসেবে ক্যারিবিয়ানদের বিরুদ্ধে টি-২০ সিরিজে স্কোয়াডে এলেন কেরলের উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান।

উল্লেখ্য, চলতি মাসের শুরুতে সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফিতে দিল্লির হয়ে খেলার সময় বাঁ হাঁটুতে চোট পান জাতীয় দলের ওপেনিং ব্যাটসম্যান ধাওয়ান। ফিল্ডিংয়ের সময় আহত হয়ে হাসপাতালেও ছুটতে হয় ধাওয়ানকে। বাঁ-হাঁটুতে সেলাইও পরে গব্বরের। সেই চোট এখনও পুরোপুরি না সারায় মঙ্গলবার তাঁর চোটের গুরুত্ব পর্যালোচনা করে আসন্ন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে টি-২০ সিরিজে তাঁকে বিশ্রামে পাঠানোর নির্দেশ দেয় বোর্ডের মেডিকেল টিম।

বুধবার বিসিসিআই’য়ের তরফ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘সুরাটে সৈয়দ মুস্তাক আলি টুর্নামেন্টে মহারাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ম্যাচে চোটের কারণে বাঁ-হাঁটুতে গভীর ক্ষতের সৃষ্টি হয় ধাওয়ানের। মঙ্গলবার বিসিসিআই মেডিকেল টিম তাঁর চোট পরীক্ষা করে জানায় ধাওয়ানের চোট সারতে বেশ কিছুটা সময় লাগবে।’ বিবৃতিতে আরও জানানো হয়, ‘অল-ইন্ডিয়া সিনিয়র নির্বাচক কমিটি টি-২০ সিরিজের জন্য ধাওয়ানের পরিবর্তে সঞ্জু স্যামসনকে বেছে নিয়েছে।’

উল্লেখ্য, গত সপ্তাহে ইডেনে ঐতিহাসিক পিঙ্ক বল টেস্ট শুরুর ঠিক আগেরদিন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে টি-২০ ও ওয়ান-ডে সিরিজের জন্য দল নির্বাচন করেন এমএসকে প্রসাদ নেতৃত্বাধীন নির্বাচক কমিটি। ঘরোয়া ক্রিকেটে দুরন্ত পারফরম্যান্স সত্ত্বেও ক্যারিবিয়ানদের বিরুদ্ধে টি-২০ বা ওয়ান-ডে সিরিজে স্কোয়াডে জায়গা হয়নি সঞ্জুর। এর আগে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে টি-২০ সিরিজে কোহলি না থাকায় ব্যাক-আপ ব্যাটসম্যান হিসেবে স্কোয়াডে থাকলেও একাদশে সুযোগ মেলেনি কেরল ব্যাটসম্যানের।

ক্যারিবিয়ানদের বিরুদ্ধে সঞ্জু সুযোগ না পাওয়ায় সুর চড়িয়েছিলেন কংগ্রেসের লোকসভার সাংসদ শশী থারুর। টুইট করে থারুর লেখেন, ‘সঞ্জু স্যামসনকে সুযোগ না দেওয়ায় আমি ভীষণই হতাশ। তিনটি টি-২০ ম্যাচের জন্য জলের বোতল বইয়ে তাঁর কথা আর ভাবলেনই না নির্বাচকরা। ওরা কী সঞ্জুর ব্যাটিংয়ের পরীক্ষা নিচ্ছে না ধৈর্য্যের? পরবর্তীতে মাইক্রোব্লগিং সাইটে চর্চিত এই রাজনীতিবিদের টুইটের প্রশ্নের উত্তর দেন হরভজন।

থারুরের প্রশ্নের উত্তরে সোমবার হরভজন লেখেন, ‘আমার মনে হয় নির্বাচক কমিটি সঞ্জু স্যামসনের ধৈর্য্যেরই পরীক্ষা নিচ্ছে #সিলেকশনপ্যানেলনিডটুবিচেঞ্জ। ওই পদের জন্য কিছু ভালো মানুষ দরকার। আশা করছি দাদা (সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়) প্রয়োজনে সেটাই করবেন।’