নয়াদিল্লি: সাম্প্রতিক সময়ে বোর্ডের একজন চুক্তিবদ্ধ ধারাভাষ্যকর হিসেবে বিভিন্ন সময় বিতর্কের শিরোনামে উঠে এসেছেন প্রাক্তন জাতীয় দলের ব্যাটসম্যান সঞ্জয় মঞ্জরেকর। আর সেই কারণেই সম্ভবত বোর্ডের কমেন্ট্রি প্যানেল থেকে হঠাতই বাদ পড়লেন জনপ্রিয় এই ধারাভাষ্যকর।

এমনকি আইপিএলের ত্রয়োদশ সংস্করণে তাঁকে কমেন্ট্রি বক্সে দেখা যাবে কীনা, তা নিয়েও রয়েছে প্রবল ধোঁয়াশা। উল্লেখ্য, করোনা আতঙ্কে সদ্য স্থগিত হয়ে যাওয়া ভারত বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা ওয়ান-ডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে ধারাভাষ্যকর হিসেবে প্যানেলে নাম থাকলেও ধরমশালায় উপস্থিত ছিলেন না মঞ্জরেকর। হঠাত করে তাঁকে প্যানেল থেকে ছেঁটে ফেলার নির্দিষ্ট কোনও কারণ স্পষ্ট নয় এখনও। তবে মনে করা হচ্ছে সাম্প্রতিক সময়ে তাঁর কাজে সন্তুষ্ট ছিল না বোর্ড। অন্তত দেশের প্রথম সারির সংবাদমাধ্যম মুম্বই মিররের রিপোর্ট সেই কথাই বলছে।

আইপিএলে ধারাভাষ্যকরদের প্যানেল থেকে যে বাদ পড়তে পারেন তিনি, সেব্যাপারেও আভাস দিয়েছে মুম্বই মিরর। উল্লেখ্য, ফেলে আসা বছরে একবার নয় বরং দু’বার ধারাভাষ্য সম্পর্কিত কারণে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন এই মুম্বইকার। জাতীয় দলের অল-রাউন্ডার রবীন্দ্র জাদেজাকে ‘বিটস অ্যান্ড পিসেস’ ক্রিকেটার বলে সম্বোধন করে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন মঞ্জরেকর। পরে অবশ্য পারফরম্যান্সেই ধারাভাষ্যকরকে জবাব দিয়েছিলেন জাদেজা। এমনকি সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রত্যুত্তর দিতেও ভোলেননি তিনি।

এরপর গত বছরের শেষদিকে দেশের মাটিতে অনুষ্ঠিত হওয়া প্রথম পিঙ্ক বল টেস্টে কমেন্ট্রি বক্সে তাঁর সতীর্থ হর্ষ ভোগলেকে তাঁর অভিজ্ঞতা নিয়ে প্রশ্নবাণ ছুঁড়ে দিয়েছিলেন সঞ্জয়। যা মোটেই ভালো চোখে নেননি ক্রীড়া অনুরাগীরা। পরে যদিও ভগলের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিয়েছিলেন তিনি। তবে তাতে বোর্ডের কাছে হারানো ইমেজ সহজে পুনরুদ্ধার হয়নি। সবদিক বিচার বিবেচনা করে অবশেষে তাঁকে কমেন্ট্রি প্যানেল থেকে ছেঁটেই ফেলল বোর্ড।