বার্মিংহ্যাম: এজবাস্টনে বাবরের ব্যাট শাসন করেছে কিউয়ি বোলারদের৷ আর তাতেই বিশ্বকাপে বেঁচে থাকার রসদ পেল পাকিস্তান৷ বুধবার এজবাস্টনে নিউজিল্যান্ডকে ৬ উইকেটে হারিয়ে বিশ্বকাপে সেমিফাইনালে যাওয়ার আশা জিইয়ে রাখল ১৯৯২-এর বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা৷ বার্মিংহ্যামে সরফরাজদের ‘কিউয়ি বধে’ অনুপ্রাণিত হওয়ার বার্তা দিলেন ভারতীয় টেনিস সুন্দরী সানিয়া মির্জা৷

বাবর আজমের অপরাজিত সেঞ্চুরিতে চলতি বিশ্বকাপে প্রথমবার হারের মুখ দেখে নিউজিল্যান্ড৷ এজবাস্টনে টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করে নিউজিল্যান্ড নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ২৩৭ রান তোলে৷ কলিন ডি’ গ্র্যান্ডহোমকে সঙ্গে নিয়ে কিউয়িদের লড়াইয়ের রদস এনে দিয়েছিলেন জিমি নিশাম৷ টিনেজার শাহিন শাহ আফ্রিদির বাঁ-হাতি পেস বোলিং কিউয়ি ব্যাটিং লাইন-আপে ধস নামায়৷ রান তাড়া করতে নেমে ৪৯.১ ওভারে ৪ উইকেটে ২৪১ রান তুলে ম্যাচ জিতে যায় পাকিস্তান৷

নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে সরফরাজদের জয়ের পর টুইটারে সানিয়া লেখেন, “What an incredibly great leveler sport can be”৷ বিশ্বকাপে প্রথমবার নয়, এর আগে ১৬ জুন ম্যাঞ্চেস্টারে ভারত-পাক ম্যাচের আগেও টুইটরে চর্চায় ছিলেন পাক ব্যাটসম্যান শোয়েব মালিকের স্ত্রী৷ তবে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ভারতের কাছে পাকিস্তানের হারের পর পাক ক্রিকেটার সঙ্গে সানিয়া মির্জার ডিনারের ছবি সমালোচনার ঝড় তুলেছিল পাক সমর্থকদের মধ্যে৷

নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে ৭ ম্যাচে ৭ পয়েন্ট নিয়ে এই মুহূর্তে ৬ নম্বরে রয়েছে পাকিস্তান৷ অর্থাৎ সেমিফাইনালে ওঠার আশা এখনও জিইয়ে রয়েছে সরফরাজদের৷ লিগের শেষ দু’টি ম্যাচে পাকিস্তান জিতলে এবং শ্রীলঙ্কা ও ইংল্যান্ড লিগে তাদের বাকি ম্যাচগুলির মধ্যে একটি করে হারলে শেষ চারের ছাড়পত্র পেয়ে যাবে পাকিস্তান৷ লিগে সরফরাজদের শেষ দু’টি ম্যাচে লড়াই আফগানিস্তান ও বাংলাদেশের বিরুদ্ধে৷

বিশ্বকাপের শুরুটা মোটেও মনে রাখার মতো হয়নি পাকিস্তানের৷ তবে যত সময় গড়িয়েছে, বিশ্বকাপে পরিণত ক্রিকেট উপহার দিয়েছে পাকিস্তান৷ ইংল্যান্ডকে হারানোর পর ভারতের কাছে পরাজয় যদি সরফরাজদের আত্মবিশ্বাসে চিড় ধরিয়ে থাকে, তবে দক্ষিণ আফ্রিকা ও নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে হারানো আত্মবিশ্বাস ফিরে পেয়েছে পাকিস্তান৷

নিউজিল্যান্ডকে হারানোর পর পাক অধিনায়ক সরফরাজের বক্তব্য, ‘দেওয়ালে পিঠ ঠেকার পর আমরা ভালো খেলি৷ এটা দারুণ টিম এফোর্ট৷ বোলাররা দারুণ বোলিং করেছে৷ ব্যাটসম্যানরাও দারুণ খেলেছে৷ ২৪০ রান তাড়া করাটা সহজ ছিল না৷ বাবরের এই ইনিংসটা আমার দেখা সেরা৷ চাপের মধ্যে ও দারুণ ইনিংস খেলেছে৷’ পাকিস্তানের পরের ম্যাচ আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে শনিবার হেডিংলেতে৷