গুয়াহাটি: মঙ্গলবার বিশ্বকাপের যোগ্যতা নির্ণায়ক পর্বের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে মাঠে নামার আগে ভারতীয় শিবিরে ধাক্কা। গোঁড়ালির চোটের কারণে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ম্যাচে ছিটকে গেলেন সেন্টার-ব্যাক সন্দেশ ঝিঙ্গান। বুধবার আইএসএল ফ্র্যাঞ্চাইজি দল নর্থ-ইস্ট ইউনাইটেডের বিরুদ্ধে প্রস্তুতি ম্যাচে গোঁড়ালিতে চোট পেয়েছিলেন ঝিঙ্গান। আর সেই চোটের কারণেই কোয়ালিফায়ারের তৃতীয় ম্যাচে ঝিঙ্গানকে ছাড়াই মাঠে একাদশ সাজাতে হবে ইগর স্টিম্যাচকে।

সেপ্টেম্বরে দোহার মাটিতে এশিয়া চ্যাম্পিয়ন কাতারের বিরুদ্ধে অমিমাংসিত ম্যাচে দলের রক্ষণকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন সেন্টার ব্যাক ঝিঙ্গান। দস্তানা হাতে দুর্গের শেষ প্রহরী গুরপ্রীত সান্ধুর পাশাপাশি দক্ষতাকে শীর্ষে নিয়ে গিয়ে পারফরম্যান্স করেছিলেন কেরালা ব্লাস্টার্সের এই ডিফেন্ডার। স্বাভাবিকভাবেই সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে ঘরের মাঠে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ঝিঙ্গানকে বাড়তি দায়িত্ব আরোপ করতেন দলের ক্রোয়েশিয়ান কোচ।

আরও পড়ুন: প্রথমবার স্টেডিয়ামে ঢুকেই জাতীয় দলের ঐতিহাসিক জয় দেখল ইরানের মেয়েরা

ঝিঙ্গানের আগেই চোটের তালিকায় নাম লিখিয়েছিলেন ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার প্রণয় হালদার ও রাইট-ব্যাক রাহুল ভেকে। তাই ঝিঙ্গান ছিটকে যাওয়ায় নিশ্চিতিভাবেই বাংলাদেশের বিরুদ্ধে প্রাথমিক স্ট্র্যাটেজিতে বদল আনতে হবে স্টিম্যাচকে। বৃহস্পতিবার নিজেদের টুইটার হ্যান্ডেলে চোট পেয়ে সন্দেশ ঝিঙ্গানের ছিটকে যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারেশন। উল্লেখ্য, বুধবার প্রস্তুতি ম্যাচে নর্থ-ইস্ট ইউনাইটেডের বিরুদ্ধে ১-১ ড্র করে ভারতীয় দল।

আরও পড়ুন: নেইমারের মাইলস্টোন ম্যাচে সেনেগালের কাছে আটকে গেল ব্রাজিল

এআইএফএফ’র টুইটারে জানানো হয়, ‘নর্থ-ইস্ট ইউনাইটেড এফসি’র বিরুদ্ধে প্রস্তুতি ম্যাচে চোটের কারণে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে বিশ্বকাপের যোগ্যতা নির্ণায়ক পর্বের ম্যাচ থেকে ছিটকে গেলেন সন্দেশ ঝিঙ্গান। আমরা তাঁর দ্রুত আরোগ্য কামনা করি।’ ঝিঙ্গান-ভেকে-প্রণয়দের ছাড়া বাংলাদেশ ম্যাচে স্টিম্যাচের কাছে রিজার্ভ বেঞ্চকে দেখে নেওয়ার সুবর্ণ সুযোগ। ঝিঙ্গানের পরিবর্তে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে একাদশে শুরু করার সম্ভাবনা আনাস এডাথোডিকার।

গুয়াহাটিতে ১০ দিনের প্রস্ততি শিবির শেষে বাংলাদেশ ম্যাচ খেলতে রবিবার কলকাতা পৌঁছবে ভারতীয় দল। উল্লেখ্য, ফিফা র‍্যাংকিংয়ে ৮৩ ধাপ এগিয়ে থেকে সদ্য-প্রকাশিত বাংলাদেশের (১৮৭) বিরুদ্ধে মাঠে নামতে চলেছে ব্লু-টাইগার্সরা।