মোবাইল ফোনের বাজারে অন্যতম জনপ্রিয় ব্র্যান্ড স্যামসং। তবে কেবল ফোন নয় অন্যান্য একাধিক গ্যাজেটের ক্ষেত্রেও সমান ভাবে জনপ্রিয় এই স্যামসং। একাধিকবার ক্রেতাদের কথা ভেবে বাজারে তাদের তরফে নিয়ে আসা হয়েছে বেশ কিছু মডেলের ফোন। তবে এবারে জানা গিয়েছে ক্রেতাদের কথে ভেবে জনপ্রিয় মডেল m11 এর দাম কমাল স্যামসং।

এর আগেও বেশ কিছু ফোনের দাম কমানো হয়েছে স্যামসং এর তরফে। তবে এই ফোনের দাম কমানোর ফলে এবারে ক্রেতারা যথেষ্ট কম দামে কিনতে পারবেন এই ফোন। এই মুহূর্তে ভারতের মোবাইল বাজারে রয়েছে একাধিক ব্র্যান্ড ।আর তা যথেষ্ট জপ্ন্রপিয়। তার মধ্যেও নিজেদের জনপ্রিয়তা বজায় রেখেছে স্যামসং। এমনকি ক্রতাদের জন্য বাজারে নিয়ে এসেছে একের পর এক সিরিজের ফোন। জানা গিয়েছে ভারতের বাজারে এই ফোনের দাম কমানো হয়েছে ১০০০ টাকা। এও জানানো হয়েছে ৪ জিবি র‍্যাম মডেলের ক্ষেত্রেই কমানো হয়েছে এই দাম। নতুন দামে ইতিমধ্যে অনলাইন এবং অফলাইনেও পাওয়া যাচ্ছে এই ফোন।

তবে এই ফোনে রয়েছে snapdragon 450 chipset এর সুবিধাও। তার সঙ্গে এই ফোনে রয়েছে ৫০০০ mah ব্যাটারির সুবিধা। এছাড়া এই ফোনে রয়েছে ৬.৪ ইঞ্চি ডিসপ্লের সুবিধা। তার সঙ্গে নিরাপত্তার জন্য এই ফোনে রয়েছে ফিঙ্গার প্রিন্ট সেন্সরের সুবিধাও। ক্রেতাদের কথা ভেবে এই ফোন চারটি আলাদা রঙে আনা হয়েছে। এছাড়া এই ফোনে রয়েছে triple rear camera। পাশপাশি রয়েছে ১৩ মেগাপিক্সেল সেন্সরের সুবিধাও। এছাড়াও সেলফি এবং ভিডিও কলের জন্য ররয়েছে ৮ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরার সুবিধা। পাশপাশি এই ফোনে রয়েছে ৫০০০ mah ব্যাটারির সুবিধা। তার সঙ্গে রয়েছে octa core snapdragon 450 chipset এর সুবিধা। এতে রয়েছে মেমরি কার্ড ব্যবহারের সুবিধাও। তার সঙ্গে রয়েছে দ্রুত চার্জের সুবিধাও। তবে দাম কমার ফলে এই ফোন আরও বেশি সংখ্যক ক্রেতারা কিনবে তা বলাই যায়। কারণ অনেকের কাছেই এই ফোন ছিল যথেষ্ট আকর্ষণের।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.