নয়াদিল্লি: কোরিয়ান সংস্থা স্যামসং বরাবর তাদের নিত্য নতুন গ্যাজেট দিয়ে গ্রাহকদের আকর্ষণ করেছেন। কেবল মাত্র ফোন নয় অন্যান্য একাধিক সিরিজ বাজারে আনাতে গ্রাহকদের মধ্যে যথেষ্ট জনপ্রিয়তা পেয়েছে samsung a72। মূলত অল্প দামের মধ্যে একধিক ডিজাইনের গ্যাজেট আনার ফলে খুব অল্প সময়ের মধ্যে জনপ্রিয়তা পেয়েছে স্যামসং।

তবে এবারে জানা গিয়েছে এক নয়া তথ্য। জানা গিয়েছে দ্রুত বাজারে আসতে চলেছে samsung a72। এই প্রথম কোন ফোনের পিছনে থাকবে ৫ টি ক্যামেরা। এর আগে এই ধরনের ফোন বাজারে এনেছে শাওমি, নোকিয়া সহ একাধিক ব্র্যান্ড। আর সেই কারণে এবারে বাজারে এই নয়া পদক্ষেপ নিতে চলেছে স্যামসং।

তবে জানা গিয়েছে এটি কেবল samsung a72 তেই নয়। আগামী বছরে লঞ্চ হওয়া একাধিক ফোনে দেখা যাবে এই ফিচার। ফলে মনে করা হচ্ছে মানুষের কাছে ক্রমেই আকর্ষণ বাড়বে স্যামসং এর। যদিও এই মুহূর্তে ভারত সহ আন্তর্জাতিক বাজারে যথেষ্ট জনপ্রিয় স্যামসং। জানা গিয়েছে samsung a72 পেনটা রেয়ার ক্যামেরার প্রাইমারি ক্যামেরা হবে ৬৪ মেগাপিক্সেল। তাছাড়া থাকবে ১২ মেগাপিক্সেল ultra wide angle lense,8 megapixel 3x teliphoto lens, 5 megapiksel macro lens, 5 megapixel depth sensor।

পাশপাশি জানা গিয়েছে এই ফোনের সেলফি ক্যামেরা হিসেবে থাকবে ৩২ মেগাপিক্সেল সেন্সর। তাছাড়া এখনও পর্যন্ত এই ফোনের অন্য কোন তথ্য সামনে আসে নি। এমনকি এই ফোনের দাম কত হবে টাও জানা যায়নি। তবে মনে করা হচ্ছে যেহেতু স্যস্মং মূলত কধ্যবিত্ত গ্রাহকদের কথা ভেবেও একের পর এক ফোন বাজারে নিয়ে আসে সেই কারণে এই ফোনেও থাকবে একাধিক সুবিধা। এছাড়া দাম হবে নাগালের মধ্যে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।