নিজস্ব প্রতিবেদন, বর্ধমান: জেলা স্বাস্থ্য দফতরের উদ্যোগে পুর্ব বর্ধমান বর্ধমানের জাতীয় সড়কের ধারে শক্তিগড় এলাকার বিভিন্ন মিষ্টির দোকানে হঠাৎ অভিযান চালিয়ে ল্যাংচা, মিহিদানা, শোনপাপড়ি, রসগোল্লা এই চার রকমের মিষ্টির সার্ভিলেন্স স্যাম্পেল সংগ্রহ করা হল।

সংগ্রীহিত নমূনা পুনেতে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হবে বলে জানিয়েছেন জেলার ডেপুটি সিএমওএইচ- ২ সুনেত্রা মজুমদার। তিনি জানিয়েছেন, মুলত দুটি বিষয় পরীক্ষার সময়ে দেখা হবে৷ ১) বিক্রেতারা মিষ্টির উপকরণ হিসেবে যা দাবি করেছেন তা বাস্তবে মিষ্টিতে আছে কিনা এবং ২) মিষ্টিতে কোনও ব্যাকটিরিয়া সংক্রমণ আছে কীনা।

তিনি আরও জানিয়েছেন, এ ব্যাপারে রিপোর্ট আসার পরই সংশ্লিষ্ট বিক্রেতার বিরূদ্ধে প্রয়োজনে পদক্ষেপ নেওয়া হবে। উল্লেখ্য, সম্প্রতি এই জেলায় ১টি থেকে বেড়ে ১০টি ফুড সেফটি অফিসারের পদ তৈরী হয়েছে। সেখানে ৬ জন নিয়োগ হয়েছেন। তাঁদের মাধ্যমে এদিন এই নমুনা সংগ্রহ করা হয়। তিনি জানিয়েছেন, বেশ কিছুদিন ধরেই এই এলাকার দোকানগুলির অপরিচ্ছন্নতা নিয়ে অভিযোগ আসছিল। কিন্তু লোকাভাবে এভাবে হানা দেওয়া যায়নি। এদিন বেশ কিছু দোকানে বাসি ছানা দেখতে পাওয়া যায়। তা ফেলে দেওয়া হয়েছে। বেশ কিছু দোকানের অপরিচ্ছন্নতা নিয়ে তাদের সাবধান করা হয়েছে বলেও জানান তিনি৷