কলকাতা: সোমবার থেকে দেশজুড়ে চালু হয়েছে চতুর্থ দফার লকডাউন। তবে আগের লকডাউনের সঙ্গে চতুর্থ দফার এই লকডাউনের ফারাক রয়েছে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। এবার রাজ্যে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে সেলুন ও বিউটি পার্লার চালু করা যাবে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

লকডাউনের শুরু থেকে বন্ধ রয়েছে সেলুন ও বিউটি পার্লারগুলি। করোনার সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার আতঙ্কেই সেলুন ও বিউটি পার্লারগুলি বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। তবে দিনের পর দিন সেলুন বন্ধ থাকার জেরে দারুণ অর্থ-সংকটে ভুগতে শুরু করেছেন ক্ষৌরকাররা। ইতিমধ্যেই তাঁদের তরফে এব্যাপারে মুখ্যমন্ত্রীকেও আবেদন জানানো হয়েছে।

সংকট বুঝেই এব্যাপারে পদক্ষেপ করল রাজ্য সরকার। সোমবার নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, সেলুন ও বিউটি পার্লারগুলি খুলে দিতে চায় রাজ্য সরকার। তবে সেক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিতে হবে ক্ষৌরকারদের।

এই প্রসঙ্গে অন্য একটি রাজ্যের কথাও উল্লেখ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, ‘অন্য একটি রাজ্যে সেলুনে কাঁচি দিয়ে একজনের চুল কাটার পরে সেই কাঁচি ব্যবহার করে আরও চারজনের চুল কাটা হয়। পরে ওই পাঁচজনই করোনা আক্রান্ত হন।’

ক্ষৌরকারদের সতর্ক করে মুখ্যমন্ত্রীর বার্তা, ‘একবার কারও চুল কাটার পর কাঁচিটি ভালো করে স্যানিটাইজ করে নিতে হবে। জীবাণুমুক্ত করার পরেই সেই কাঁচি ফের ব্যবহার করা যাবে। সেলুনে সামাজিক দূরত্ব মেনে কাজ করতে হবে।’ একইভাবে বিউটি পার্লারগুলিতেও যাতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে কাজ চালু করা যায় সেব্যাপারে ব্যবস্থা নিতে আবেদন করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।