মুম্বই: ঈদ মানেই অভিনেতা সলমন খানের প্ল্য়ানের তালিকায় থাকে বিশেষ কিছু। প্রতিবারই ইদে তাঁর ছবি মুক্তির জন্য অপেক্ষা করে থাকেন তাঁর অনুরাগীরা। কিন্তু এবার করোনা সংক্রমণের জন্য বদলে গিয়েছে সবকিছুই। বন্ধ বিনোদন জগতও। তাই একেবারে অন্যভাবে ইদ উদযাপন করলেন সল্লু ভাই। লকডাউনের মধ্যে দুঃস্থদের পাশে দাঁড়ালেন এই বিশেষ দিনে।

এমনিতেই তিনি লকডাউনে মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছেন। দিন আনা দিন খাওয়া মানুষের দিকে সাহায্যের হাত বাড়াচ্ছেন। ইদেও ব্যতিক্রম হল না। ৫০০০ দুঃস্থদের পরিবারেকে কাছে পৌঁছে দিলেন ইদ স্পেশাল কিট।

এই কিটে তিনি শির ও কুরমা বানানোর সমস্ত উপকরণ পাঠিয়েছেন। এর জন্য টুইটারে রাহুল এম কানাল নামে এক ব্যক্তি সলমন খানকে ধন্যবাদ জানান। এছাড়াও নিজের বাগানের সবজি ও ফলও এদিন বিতরণ করেছেন অভিনেতা।

এখানেই শেষ নয়। ইদের দিন সম্প্রীতির বার্তা দিয়ে হিন্দু-মুসলিম ভাই ভাই বলে একটি গান গেয়ে গান প্রকাশ করেছেন সলমন। এছাড়াও মুম্বইয়ের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির এমন ২৫ হাজার শ্রমিক পরিবারের দায়িত্ব নিয়েছেন সলমন।

জাতীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন থেকে জানা যাচ্ছে, লকডাউন যতদিন চলবে ততদিন এই ২৫ হাজার শ্রমিকের ও তাঁদের পরিবারের অন্ন সংস্থান করবেন সলমন। সলমনের স্বেচ্ছা সংস্থা বিইং হিউম্যানের দ্বারাই এই ব্যবস্থা হয়েছে।

বান্দ্রার যে অ্যাপার্টমেন্টে থাকেন, সেখানকরা সমস্ত কর্মী ও নিরাপত্তারক্ষীদেরও খাওয়া দাওয়ার ব্যবস্থা করছে সলমনেরই পরিবার। জানিয়েছেন সল্লু ভাইয়ের বাবা সেলিম খান। তাঁর কথায়, যাঁরা সারা বছর পাশেছাড়া থেকে কাজ করে, এই দুর্দিনে তাঁদের পাশে থাকাটাও জরুরি।

প্রসঙ্গত, এই মুহূর্তে পানভেলের ফার্ম হাউসে রয়েছেন সলমন খান। ফার্ম হাউসে সলমন একা নন। সঙ্গে রয়েছেন তাঁর বোন অর্পিতা এবং অর্পিতার দুই সন্তান। ফার্ম হাউসে থেকে সলমনের অন্যতম একটি প্ল‍্যানই ছিল অর্পিতার সন্তান আহিল ও আয়াতের সঙ্গে কোয়ালিটি টাইম স্পেন্ড করা।

সোহেল খানের ছেলেও এখানেই রয়েছেন। এছাড়াও আরও কয়েকজন তারকাও রয়েছেন সলমনের সঙ্গে। যেমন অভিনেত্রী জ্যাকলিন ফার্নান্ডেজ, রিউমরড বান্ধবী ইউলিয়া ভান্তুর, অভিনেত্রী ওয়ালুশা ডিসুজা এবং গায়ক কামাল খান।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV