নয়াদিল্লি:সরকার রিজার্ভ ব্যাংকে জানিয়েছে, ইয়েস ব্যাংকের কোথায় কি গোলমাল হয়েছিল তা দেখতে ৷ সাংবাদিকদের কাছে শুক্রবার এ কথা জানান কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারম৷ বৃহস্পতিবার এই ব্যাংকের মোরাটোরিয়াম ঘোষণা হয় ৷ ৫০,০০০ টাকার বেশি তোলা যাবে না ‘ইয়েস ব্যাংক’ থেকে বলে বৃহস্পতিবারই নির্দেশিকা জারি করে রিজার্ভ ব্যাংক।

এদিন সাংবাদিক বৈঠকে মন্ত্রী জানান, ঝুঁকিপূর্ণ ঋণ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নজরে আসার পর , রিজার্ভ ব্যাংক এই ব্যাংকের ম্যানেজমেন্ট পরিবর্তনের সুপারিশ করেছে৷ এরপর ব্যাংকের স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখেই তা সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল ৷ তারপর নতুন সিইও নিয়োগ করা হয় ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরে ৷ তদন্তকারী সংস্থাও এই সংস্থার কাজে অসঙ্গতি লক্ষ্য করেছে বলে তিনি জানান৷

তিনি জানান, রিজার্ভ ব্যাংকে বলা হয়েছে সমস্যার কারণ খতিয়ে দেখতে এবং একেক এক ভূমিকা চিহ্নিত করতে বলা হয়৷ এদিন মন্ত্রী জানান, ৩০ দিনের মধ্যে ব্যাংকের পুনর্গঠন প্রকল্প চালু হবে ৷ পাশাপাশি জানান , স্টেট ব্যাংক ইয়েস ব্যাংকে লগ্নি করার ইচ্ছা প্রকাশ করেছে ৷ পাশাপাশি এদিন অর্থমন্ত্রী আশ্বাস দেন, এক বছরের জন্য ইয়েস ব্যাংকের কর্মীদের বেতন ও চাকুরি নিশ্চিত ৷

তিনি জানান, অনিল অম্বানি গোষ্ঠী, এসেল গ্রুপ, আইএলঅ্যান্ডএফএস, ডিএইচএফ এল এবং ভোডাফোন হল ইয়েস ব্যাংকের সেই সব কর্পোরেট ঋণ গ্রহণকারী সংস্থা যাদের জন্য ব্যাংকের অবস্থা খারাপ হয়৷ এদিকে ইয়েস ব্যাংকের এই সংকটের জন্য মোদী সরকার আগের ইউপিএ সরকারের ২০০৪ থেকে ২০১৪ সালের নীতিকেই দায়ী করেছে ৷ যদিও আগের দিনেই কংগ্রেস মনমোহন সিংকে নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে তুলনা করে বলেছিল, ডাক্তার আর কোয়াকের মধ্যে তফাৎ থাকে ৷