এই মুহূর্তে গোটা দেশেই সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের মধ্যে একটি হল চাকরি। করোনার জেরে এই মুহূর্তে দেশের বহু মানুষ কর্মহীন। আর সেই কারণেই নতুন বছরে নতুন জায়গাতে চাকরি নিয়ে সবারই আগ্রহ রয়েছে। চিংছিপের সৈনিক স্কুলের তরফে কর্মী নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। নির্দিষ্ট কয়েকটি যোগ্যতা থাকলেই এই সৈনিক স্কুলে নিয়োগের জন্য আবেদন করতে পারবেন প্রার্থীরা। তবে এক্ষেত্রে হাতে আর বেশি সময় নেই। দ্রুত এই চাকরির জন্য আবেদন করতে হবে বলে জানানো হয়েছে।

জানানো হয়েছে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ পদে কর্মী নিয়োগের জন্য এই বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছিল। প্রার্থীদের দ্রুত আবেদন করতে জানানো হয়েছে। ১৩ মার্চের মধ্যে প্রার্থীদের আবেদন করতে জানানো হয়েছে। ইতিমধ্যে আবেদন প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গিয়েছে বলেও জানা গিয়েছে। দ্রুত আবেদন করতে জানানো হয়েছে সকলকে। সঠিক ভাবে আবেদন না করলে তা বাতিল হয়ে যেতে পারে বলেও জানানো হয়েছে। ইতিমধ্যে বেশ কিছু জায়গাতে কর্মী নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছিল। তবে এবারে জানা গিয়েছে এই নতুন বিজ্ঞপ্তির ফলে সুবিধা হবে সাধারণের।

মূলত tgt পদের ক্ষেত্রে কর্মী নিয়োগের জন্য এই বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। জানানো হয়েছে tgt social science regular basis পদে ক্ষেত্রে রয়েছে ১ টি শূন্য পদ। অন্যদিকে counselor contractual basis এর ক্ষেত্রে রয়েছে ১ টি শূন্য পদ। প্রার্থীদের ইতিহাস / ভূগোল / ইকোনমিক্স পলিতিকাল সাইন্স নিয়ে প্রার্থীদের স্নাতক হতে হবে। এছাড়াও প্রার্থীদের কমপক্ষে ৫০ শতাংশ নম্বর রাখতে হবে।

প্রার্থীদের বয়স ২১ থেকে ৩৫ বছরের মধ্যে রাখতে হবে। counselor contract basis পদের ক্ষেত্রে সাইকোলজি নিয়ে স্নাতক অথবা পোস্ট গ্র্যাজুয়েট হতে হবে। প্রার্থীদের বয়স ২১ থেকে ৩৫ বছরের মধ্যে হতে হবে। প্রার্থীদের দ্রুত আবেদন করতে জানানো হয়েছে। আবেদন পত্র the principal sainik school chhingchip , chhinchip village dist – serchip pin- 796161 এই ঠিকানাতে পাঠাতে হবে। অথবা অনলাইনেও আব্দদন করতে পারবেন প্রার্থীরা।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।