বেঙ্গালুরু: ধোনির ব্যাটিং পজিশন নিয়ে পরীক্ষা নিরীক্ষা বন্ধ হোক! চোন্নাস্বামীর বাইশ গজে অস্ট্রেলিয়ার কাছে ২১ রানে কোহলি অ্যান্ড কোং-এর হারের পর এটাই এখন ধোনি অনুরাগীদের একমাত্র আর্জি৷ এদিন হার্দিককে চার নম্বরে ব্যাটিংয়ে পাঠিয়ে সাত নম্বরে ধোনিকে পাঠানো হয়৷

এরপরই ভারতের ব্যাটিং অর্ডারে অহেতুক পরীক্ষা-নিরীক্ষা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকে৷ ধোনি ভক্তদের মত ফিনিশর নয় ধোনিকে এবার পাকাপাকিভাবে ব্যাটিং অর্ডারের উপরের দিকে ব্যবহার করুক কোহলি শিবির৷ ফেসবুকে এই আর্জিতেই ছেয়ে গেছে ধোনির হাজারও ফ্যান পেজ৷ একধাপ উপরে উঠে অনেকেই ভারতীয় থিঙ্কট্যাঙ্ককে চিমটি কেটে লিখেছেন, ‘আর কত নিচে নামবে ধোনি৷’ অর্থটা স্পষ্ট ধোনিকে টিম ম্যানেজমেন্ট আর কত নিচে ব্যাটিংয়ে পাঠাবে? প্রিয় সাত নম্বরইয়ে ব্যাটিংয়ে এসে যেন সমস্যায় পড়েছেন ধোনি! মাহি ভক্তরা এখন যে তাঁকে ফিনিশারের বদলে মিডিল অর্ডারে নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান হিসেবে দেখতে চায়৷

আরও পডু়ন- বাগিচা শহরে বিরাটদের বিজয়রথ থামাল অজিরা

এখানেই শেষ নয়, অজিদের বিরুদ্ধে চতুর্থ ওয়ান ডে’তে হার্দিক পান্ডিয়াকে চার নম্বরে ব্যাবহার করা নিয়েও ক্রিকেটমহলে মিশ্র প্রতিক্রিয়া শোনা যাচ্ছে৷ ধোনির দীর্ঘদিনের সতীর্থ রবীন্দ্র জাদেজা টুইটারে লিখেছেন, ‘হার্দিক ও মণীশের পরিবর্তে ধোনিকে উপরের দিকে ব্যাটিংয়ে পাঠানো উচিৎ৷’ ধারাভাষ্যকার হর্ষ ভোগলে সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছেন,‘ভারতের ব্যাটিং অর্ডার নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষাকে সাধুবাদ জানাই৷ তবে ধোনিকে কিভাবে তারা ব্যবহার করতে চায় তা টিম ম্যানেজমেন্টকে দ্রুত ভাবতে হবে৷’

বৃহস্পতিবার চেন্নাইস্বামীর বাইশ গজে তীরে এসে তরী ডোবে টিম কোহলির৷ অজিদের ৩৩৫ রানের পাহাড়প্রমাণ টার্গেট তাড়া করতে নেমে মাত্র ২১ রান আগেই থেমে যায় বিরাটের বিজয়রথ৷ এই হারের পর ক্ষোভের সঙ্গে অনেকেই জানিয়েছেন হার্দিকের পরিবর্তে ধোনিকে চার নম্বরে পাঠালে থ্রিলার ম্যাচটা অনায়াসে জিততে পারব ভারত৷ ম্যাচ হারার পরই টিম ম্যানেজমেন্টকে এক হাত নিয়েছে জেন ওয়াই, তাঁদের মতামত ধোনিকে পরে ব্যাটিং করতে পাঠানোরই খেসারত দিতে হল ভারতকে৷

আরও পড়ুন- হার্দিক-জাম্পার ডুয়েলই ইন্দো-অজি লডা়ইয়ে সেরা প্রাপ্তি

শেষ কয়েক ম্যাচ ধোনির ব্যাটিং পজিশনে নজর রাখলে ধোনি অনুরাগীদের এই ক্ষোভার কারণে উত্তর পাওয়া যাবে৷ পরিসংখ্যান বলছে, ব্যাটিং অর্ডারে উপরের দিকে ধোনিকে ব্যাবহার করে ফল পেয়েছে কোহলি শিবির৷ দ্বীপরাষ্ট্র সফরে পাল্লেকেলেতে দ্বিতীয় একদিনের ম্যাচে ছ’ নম্বরে নেমে ভারতের নিশ্চিত হার বাঁচিয়েছিলেন মাহি৷ ভুবনেশ্বরের সঙ্গে শতরান পার্টনারশিপ গড়ে ১৬ বল বাকি থাকতে অপরাজিত থেকে মাঠ ছেড়েছিলেন প্রাক্তন অধিনায়ক৷ নামের পাশে সংগ্রহ ছিল ৪৫ রান৷
ম্যাথিউজদের বিরুদ্ধে তৃতীয় ওয়ান ডে’তেও ধোনির ৮৬ বলে ৬৭রানের ইনিংসের সুবাদে সিরিজ পকেটে পুড়েছিল টিম বিরাট৷ সেবার ছ’নম্বরে ব্যাটিংয়ে নেমেছিলেন মাহি৷ রোহিতকে সঙ্গী করে ১৫৭ রানের পার্টনারশিপ গড়ে ম্যাচের রঙ পাল্টে দেন ‘মেন ইন ব্লু’-র সাত নম্বর জার্সির মালিক৷

আরও পড়ুন- নতুন বছরে বিরাটদের প্রথম টেস্ট কেপ টাউনে

চলতি সিরিজেও অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে চিপকের বাইশ গজে ধোনি-হার্দিকের শতরান পার্টনারশিপই ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট হয়ে দাঁড়ায়৷ ছ’নম্বরে নামা ধোনির ব্যাট থেকে ৮৮ বলে এসেছিল ৭৯ রান৷ চলতি বছরের শুরুতে ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ও ক্যারিবিয়ান সফরেও পাঁচ নম্বরে ব্যাট হাতে নেমে একাধিকবার ভরসা জুগিয়েছেন মাহি৷ কটকের বাইশ গজে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে পাঁচ নম্বরে নেমে ১৩৪ রানের মারকাটারি ইনিংস উপহার দিয়েছিলেন দু’বারের বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক৷ চতুর্থ উইকেটে যুবরাজের সঙ্গে ২৫৬ রানের পার্টনারশিপ গড়ে ২৫/৩ থেকে ২৮১/৪ পৌঁছে দেন৷

আরও পড়ুন- বাইশ গজে ‘রেড কার্ড’-কে স্বাগত সৌরভের

উপরের দিকে ব্যাটিং করার ক্ষেত্রে শুরুতে উইকেটের চরিত্র বুঝে নিজেকে গুছিয়ে নেওয়ার সময় পান ধোনি৷ ফলে সঙ্গী ব্যাটসম্যানকে নিয়ে বড়ো রানের পার্টনারশিপ গড়ার কাজটাও তাঁর কাছে অনেক সহজ হয়ে ওঠে৷ তুলনায় স্লগ ওভারে ফিনিশারের রোলে সমস্যায় পরে উইকেট ছুঁড়ে দিয়ে আসেন মাহি৷

ইতিমধ্যেই ২০১৯ বিশ্বকাপের কথা মাথায় রেখে ধোনির উপর আস্থা রেখেছেন কোহলি৷ সেক্ষেত্রে ক্রিকেট মহলের অনেকেই তাই মনে করছে ধোনিকে এখন থেকেই পাকাপাকিভাবে মিডল অর্ডারে ব্যবহার করে হার্দিকে ফিনিশারের রোলে ব্যবহার করুক ভারত৷

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।