নয়াদিল্লি : কেন মনোনয়ন বাতিল করা হল তাঁর? এই প্রশ্ন তুলে নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হয়েছিলেন বহিষ্কৃত বিএসএফ জওয়ান তেজ বাহাদুর৷ কিন্তু কমিশন জানিয়ে দেয় তাঁর মনোনয়নপত্রের তথ্যে ভুল রয়েছে৷ সেই কারণে বারাণসীর সপা প্রার্থী তেজ বাহাদুরের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে৷

কমিশনের এই সিদ্ধান্তে সন্তুষ্ট হতে পারেননি তিনি৷এবার সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হলেন তেজ বাহাদুর৷ নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে শীর্ষ আদালতে আবেদন জানিয়েছেন তিনি৷ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে বারাণসী লোকসভা কেন্দ্র থেকে তাঁকে প্রার্থী হিসেবে দাঁড় করিয়েছিল সমাজবাদী পার্টি৷

২০১৭ সালে সেনাবাহিনীকে নিম্নমানের খাবার দেওয়ার অভিযোগ করে একটি ভিডিও করেন এই প্রাক্তন বিএসএফ জওয়ান৷ বিতর্কিত ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে শিরোনামে আসেন তিনি৷ জওয়ানদের খারাপ খাবার দেওয়া হয় এমন অভিযোগ তোলেন তেজবাহাদুর সিং৷ তারপরেই বরখাস্ত করা হয় তাঁকে৷ শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগে বরখাস্ত হন তেজ বাহাদুর৷

সেই সেনাবাহিনীর প্রতি বর্তমান সরকারের ব্যর্থতার বিষয়গুলি তুলে ধরতেই ভোটে দাঁড়ান তিনি। তেজ বাহাদুর মোদীর বিরুদ্ধে দাঁড়ানোয় অস্বস্তিতে পড়ে বিজেপি৷ কারণ প্রতিটি জনসভায় নিয়ম করে সেনার কৃতিত্ব নিয়ে বড়াই করে থাকেন বিজেপি নেতারা৷ সেই সেনার এক বরখাস্ত হওয়া জওয়ান মোদীর বিরুদ্ধে প্রার্থী হওয়ায় উল্লসিত বিরোধীরা৷ তারা শুরু থেকেই বিজেপি বিরুদ্ধে জওয়ানদের নিয়ে রাজনীতি করার অভিযোগ তোলে৷

ট্যুইটার পোস্টে তিনি লিখেছিলেন, ‘‘এই প্রাক্তন জওয়ান হারতেও চান না , জিততেও চান না। ভারতীয় আধা সামরিক বাহিনীর প্রতি সরকারের ব্যর্থতার বিষয়গুলো তুলে ধরতেই তাঁর নির্বাচনে লড়তে আসা।”

প্রসঙ্গত, মনোনয়নপত্রে দুই রকম তথ্য দেওয়ায় তাঁকে নোটিশ পাঠায় কমিশন৷ তেজ বাহাদুর প্রথমে বারাণসী কেন্দ্র থেকে নির্দল প্রার্থী হিসাবে দাঁড়ান৷ পরে সপা’র প্রার্থী হন এবং ফের মনোনয়নপত্র জমা দেন৷ দুটি মনোনয়নপত্র খতিয়ে দেখে কমিশন৷ এবং দুটি মনোনয়নে সেনা থেকে বরখাস্ত হওয়ার আলাদা কারণ দেখান৷

কমিশন সূত্রে খবর, প্রথম মনোনয়নে তিনি জানান তাঁকে সেনা থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে৷ কিন্তু দ্বিতীয় মনোনয়নপত্রে সেই ব্যাপারে কিছু উল্লেখ করেননি৷ তাই কাগজপত্র সহ তাঁকে কমিশনে আসতে বলা হয়৷ এরপর সব খতিয়ে দেখে রিটার্নিং অফিসার তাঁর মনোনয়নপত্র বাতিল করেন৷