নয়াদিল্লি: ঘরের ছেলে ঘরে ফিরলেন। সব জল্পনার অবসান ঘটিয়ে শেষমেশ কংগ্রেসে ফের সক্রিয় ভূমিকায় ফিরছেন সচিন পাইলট। মরুরাজ্যে দীর্ঘ এক মাসের রাজনৈতিক টানাপোড়েনের অবসান। রাহুল-প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে সচিনের একান্ত বৈঠকেই কাটল জট।

রাজস্থানে রাজনৈতিক চাপানউতোরের অবসান। পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে মরুরাজ্যে আগামী ১৪ অগাস্টের বিধানসভা অধিবেশন নির্বিঘ্নেই হবে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল। কংগ্রেসের শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গে আলোচনার পরে ফের কাজে যোগ দিতে তৈরি দলের তরুণ নেতা সচিন পাইলট।

সোমবার দিল্লিতে রাহুল গান্ধীর বাড়িতে যান সচিন পাইলট। রাহুল গান্ধি ও প্রিয়াঙ্কা গান্ধির সঙ্গে প্রায় ঘণ্টা দু’য়েক কথা হয় সচিনের। সেই বৈঠকেই পুরোন বিবাদ ভুলে ফের দলে সক্রিয় ভূমিকায় ফেরার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন সচিন পাইলট।

সোমবারের বৈঠক ফলপ্রসূ হয়েছে বলে জানিয়ছেন সচিন পাইলট নিজেও। এমনকী কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক কেসি ভেনুগোপালও পরে জানান, দলের হয়ে রাজস্থানে ফের সক্রিয় ভূমিকা নেবেন বলে প্রতিশ্রুতি দিয়ছেন সচিন পাইলট।

একইসঙ্গে সচিন পাইলট-সব রাজদস্থানে দলের বিদ্রোহী বিধা.কদের সঙ্গে কথা বলতে তিন সদস্যের কমিটি গঠনের কথাও জানিয়েছেন ওই কংগ্রেস নেতা। আলোচনার মাধ্যমেই রাজস্থানে কংগ্রেসের অন্তর্দন্দ্ব মেটানো হবে বলে জানিয়েছেন কংগ্রেস নেতা ভেনুগোপাল।

সোমবার রাহুল গান্ধীর বাড়িতে বৈঠক শেষে বেরিয়ে পরে সংবাদিকদের মুখোমুখি হন সচিন পাইলট। সচিন বলেন, ‘আমাদের সব বিষয় গুরুত্ব দিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছেন সোনিয়া গান্ধী, রাহুল গান্ধী ও প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। কংগ্রেস নেতৃত্বকে কৃতজ্ঞতা জানাই। গণতন্ত্র বাঁচাতে আমি কংগ্রেসের হয়ে রাজস্থানে কাজ করব।’

রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলটের সঙ্গেই বিবাদ তৈরি হয় তৎকালীন রাজ্যের উপ-মুখ্যমন্ত্রী সচিন পাইলটের। মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলটের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ ঘোষণা করেন কংগ্রেসের তরুণ নেতা সচিন।

অনুগামী ১৮ বিধায়ককে নিয়ে রাজস্থান সরকার ফেলে দেওয়ার চেষ্টারও অভিযোগ সচিনের বিরুদ্ধে। পরে সচিনকে উপ-মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে সরিয়ে দেন মুখ্যমন্ত্রী অষশোক গেহলট। এমনকী রাজস্থান প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির পদও সচিনের কাছ থেকে কেড়ে নিয়েছেন তিনি।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও