লর্ডস:বিশ্বকাপ ফাইনালে আজ ইংল্যান্ডের মুখোমুখি মিতালি অ্যান্ড কোম্পানি৷ লর্ডস ফাইনালে ব্রিটিশ বধ করলেই ইতিহাসের পাতায় নাম লিখিয়ে ফেলবে একতা-মান্ধানারা৷ হাইভোল্টেজ ম্যাচের আগে তাই ভারতীয় মহিলা ক্রিকেটারদের বুস্ট করার কাজে নেমে পড়লেন ক্রিকটঈশ্বর সচিন তেন্ডুলকর৷

সেমিফাইনালের আগে ঝুলন-মিতালিদের পরিশ্রম ও সাধনার গল্প শুনিয়েছিলেন তিনি৷ এবার শুধু সিনিয়রদের নয়, জুনিয়রদের জীবনের কঠিন সময়ের কাহিনী শোনালেন সচিন৷ সেমিফাইনালে মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান হরমনপ্রীত কৌরের ব্যাটিং দাপটে(১৭১ রান) ছ’বারের চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রলিয়াকে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছে ভারত৷ এরপর দেশ জুড়ে হারমনপ্রীতই এখন নয়া সেনসেশন৷
মাস্টারব্লাষ্টার অবশ্য হরমনপ্রীতের সাফল্য নয়, তার সাধনাকেই কুর্ণিশ জানাচ্ছেন৷ সচিন জানিয়েছেন, ‘ছোটবেলা থেকেই দেশের জার্সিতে খেলার জন্য মুখিয়ে থেকেছে পাঞ্জাবের এই ব্যাটসম্যান৷ নিজের লক্ষ্যে অবিচল থেকে তাই কঠোর পরিশ্রমের জীবনকে বেছে নিয়েছে সে৷ আসুন হরমনপ্রীতদের এই ক্রিকেট জার্নিকে স্যালুট জানায়৷’
মেয়ের সাফল্যে খুশি পরিবারও৷ হারমনপ্রীতের মাও জানিয়েছেন, ‘যারা কন্যা সন্তান হত্যা করে তারা সত্যিই নির্বোধ৷ মেয়েরা আজ সব ক্ষেত্রেই পুরুষদের সমান তালে দৌড়চ্ছে৷’

হারমনপ্রীতের পাশাপাশি রাজেশ্বরী গায়কোয়াড়ের প্রশংসা শোনা গেল সচিনের মুখে৷ কর্ণাটকের বিজাপুরের ছোট্ট শহর থেকে ক্রিকেট কেরিয়ার শুরু করেছিলেন বাঁ-হাতি বোলার৷ পেস বোলার হিসাবে কেরিয়ার শুরু করলেও পরে স্পিন ভেল্কি দেখাতে শুরু করেন তিনি৷ নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে পাঁচ উইকেট তুলে সেমিফাইনালে তোলেন তিনি৷ ছোট শহর থেকে উঠে আসা ক্রিকেটারদের কাছে রাজেশ্বরীই এখন নতুন অনুপ্রেরণা৷এমনটাই জানালেন সচিন৷