কার্ডিফ: বিশ্বকাপে বাইশ গজে বড় রান ওঠার আভাস আগেই পাওয়া গিয়েছিল৷ সদ্য সমাপ্ত ইংল্যান্ড-পাকিস্তান ওয়ান ডে সিরিজে চার ম্যাচেই তিনশোর বেশি রান উঠেছে৷ শুধু তাই নয়, তিনটি ম্যাচে ৩৪০ রান তাড়া করা সম্ভব হয়েছে৷ এদিন কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেন্সে অবশ্য ৩৩৮ রান তাড়া করতে পারল না শ্রীলঙ্কা৷ প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে ৮৭ রান হারিয়ে বিশ্বকাপে গা-ঘামালে ফ্যাফ ডু’প্লেসিরা৷

সোফিয়া গার্ডেন্সে বিশ্বকাপের এদিন দ্বিতীয় ওয়ার্ম-আপ ম্যাচে ম প্রথমে ব্যাট করে দ্বীপরাষ্ট্রের সামনে বড় রানের লক্ষ্যমাত্রা ছুঁড়ে দেয় প্রোটিয়াবাহিনী। ওপেনার হাসিম আমলার ৬৫, দলনায়ক ফাফ ডু প্লেসির ৮৮ রান দক্ষিণ আফ্রিকাকে পৌঁছে দিল পাহাড়প্রমাণ ৩৩৮ রানে। কিন্তু রান তাড়া করতে নেমে ৪২.৩ ওভারে মাত্র ২৫১ রানে অল-আউট হয়ে যায় শ্রীলঙ্কা৷ ব্যাট হাতে ঝোড়ো ৩৫ রান করার পর বল হাতে ৭ ওভারে ৩৬ রান দিয়ে চার উইকেট তুলে নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার জয় নিশ্চিত করেন পেয়েলুখাও৷

ওয়েলসের রাজধানী শহরে প্রথমদিনের প্রস্তুতি ম্যাচে এদিন টস জিতে দক্ষিণ আফ্রিকাকে এদিন ব্যাটিংয়ে আমন্ত্রণ জানান শ্রীলঙ্কা দলনায়ক দিমুথ করুণারত্নে। সুরঙ্গা লাকমল, নুয়ান প্রদীপদের বিরুদ্ধে শুরুটা ভালোই করেন দুই প্রোটিয়া ওপেনার হাসিম আমলা ও এইডেন মার্করাম। কিন্তু ৬.২ ওভারে দলীয় ৪৭ রানের মাথায় ভয়ঙ্কর হয়ে উঠতেই মার্করামকে ফেরান লাকমল। ১৫ বলে ২১ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি।

এরপর দ্বিতীয় উইকেটে আমলা-ডু’প্লেসির ১২৮ রানের পার্টনারশিপ মজবুত ভিতের উপর দাঁড় করিয়ে দেয় দক্ষিণ আফ্রিকাকে। অর্ধশতরান পূর্ণ করে ব্যক্তিগত ৬৫ রানে আউট হন আমলা। এরপর ভ্যান ডার ডাসেনকে সঙ্গে নিয়ে ধীরে ধীরে শতরানের দিকে এগোলেও শতরান থেকে ১২ রান দূরে থেমে যেতে হয় অধিনায়ককে। ৬৯ বলে ৭টি চার ও ৪টি চয়ের সাহায্যে ৮৮ রান করে ফেরেন প্লেসি। এরপর মিলার মাত্র ৫ রানে ফিরলেও বাকি ব্যাটসম্যানদের সম্মিলিত সহযোগীতায় ৫০ ওভারে বড়সড় স্কোর খাড়া করে দক্ষিণ আফ্রিকা।

ভ্যান ডার ডাসেন করেন ৪০। জেপি ডুমিনি ও অ্যান্ডাইল ফেহলুকুয়াও করেন যথাক্রমে ২২ ও ৩৫ রান। শেষে ডুয়েইন প্রিটোরিয়াস ও ক্রিস মরিসের অপরাজিত ইনিংসে ভর করে ৭ উইকেটে ৩৩৮ রানে পৌঁছে যায় প্রোটিয়ারা। প্রিটোরিয়াস অপরাজিত থাকেন ২৫ রানে ও মরিসের সংগ্রহ অপরাজিত ২৬। এদিকে ম্যাচের ১৮তম ওভারে প্রোটিয়া কাপ্তান ফাফ ডুপ্লেসি’র শট আটকাতে গিয়ে বিপজ্জনকভাবে পা পিছলে পড়ে যান লঙ্কান দলের তরুণ ডান হাতি ব্যাটসম্যান৷ গোড়ালিতে গুরুতর চোট পাওয়ায় ফার্নান্ডোকে স্ট্রেচার করে মাঠ ছাড়তে হয়৷ এক্স-রে রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পরই অভিষ্কার চোট সম্পর্কে বিবৃতি দেওয়ার কথা জানিয়েছে শ্রীলঙ্কান টিম ম্যানেজমেন্ট৷

রান তাড়া করতে নেমে এদিন শুরুটা মোটেই ভালো হয়নি শ্রীলঙ্কার৷ স্কোর বোর্ডে কোনও রান তোলার আগেই ড্রেসিংরুমের পথ ধরেন কুশল পেরেরা৷ তার পর অবশ্য ক্যাপ্টেন দ্বিমুত করুনারত্নে সর্বোচ্চ ৮৭ রান করেন৷ ইনিংসে এক ডজন বাউন্ডারি মারেন লঙ্কা ক্যাপ্টেন৷ এছাড়া প্রাক্তন অধিনায়ক অ্যাঞ্জলো ম্যাথিউজ ৬৪ রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেন৷ ৬৬ বলের ইনিংসে ৬টি বাউন্ডারি ও একটি ওভার বাউন্ডারি৷ দুরন্ত বোলিং করেন প্রোটিয়া পেসার লুঙ্গি এনগিদি৷ ৬ ওভারে মাত্র ১২ রান খরচ করে দু’টি উইকেট তুলে নেন প্রোটিয়া পেসার৷