নয়াদিল্লি : বেজিংকে চাপে রেখে কাছাকাছি ভারত রাশিয়া। চলতি বছরের অক্টোবরেই ভারতে আসছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। বৃহস্পতিবার এক ট্যুইট বার্তায় এই খবর জানিয়েছে কেন্দ্রের বিদেশমন্ত্রক। বিদেশ মন্ত্রকে মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব জানান, বেশ কিছু বিষয় নিয়ে কথা হতে পারে দুদেশের রাষ্ট্রপ্রধানদের।

বার্ষিক দ্বিপাক্ষিক বিভিন্ন চুক্তি এই সফরে নজরে থাকবে। তবে সীমান্তে চিনের বাড়বাড়ন্তের কথাও উঠে আসতে পারে বৈঠকে। শুধু রাষ্ট্রপ্রধানরাই নন, আলোচনায় সামিল হবেন দুই দেশের মন্ত্রীরাও। দোসরা জুলাই প্রেসিডেন্ট পুতিনের সঙ্গে ফোনে কথা বলেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। পুতিনের পুনর্নিবাচিত হওয়ার বিষয়ে শুভেচ্ছা জানিয়ে ছিলেন মোদী।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে রাশিয়ার সাফল্য উদযাপনের ৭৫তম বার্ষিকী উপলক্ষে অভিনন্দন জানাতেই মূলত প্রেসিডেন্ট পুতিনকে ফোন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। জানা যায়, দুপক্ষের আলোচনায় দুই দেশ রাশিয়া এবং ভারতের মধ্যে পারস্পরিক সমঝোতা আরও বাড়ানো নিয়ে বিভিন্ন বিষয় উঠে আসে।

জুনের শেষ সপ্তাহে প্রতিরক্ষামন্ত্রী মস্কো সফর করেন। ২২শে জুন রাশিয়া সফরে যান প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং। এই সফরেই রাশিয়াকে মিসাইল ডিফেন্স সিস্টেম দ্রুত দেওয়ার কথা জানায় ভারত। ২০১৮ সালের অক্টোবরে মস্কোর সঙ্গে ৫৪৩ কোটি মার্কিন ডলারের চুক্তি করেছিল দিল্লি। এই সফরে সেই চুক্তিতেই শান দেওয়া হয়।

গত ফেব্রুয়ারিতে ফেডারেল সার্ভিস অফ মিলিটারি টেকনিক্যাল কার্পোরেশন অফ রাশিয়ার ডেপুটি ডিরেক্টর ভ্লাদিমির দ্রঝভ জানিয়েছিলেন, ২০২১ সালের মধ্যেই প্রথম এস-৪০০ সিস্টেম হাতে পাবে ভারত। তবে ভারত চিন সীমান্ত সমস্যার মধ্যেই এই অস্ত্র হাতে পেতে চায় নয়াদিল্লি।

ভারতের সঙ্গে রাশিয়ার এই সখ্যতায় চিন যে বেশ চাপে, তা বলাই বাহুল্য। ইতিমধ্যে ভারতের বিদেশ সচিব হর্ষ বর্ধন স্রিংগলার সঙ্গে কথা হয়েছে রাশিয়ার উপ বিদেশমন্ত্রীর।

এর আগে, জানা যায় ভারত রাশিয়া অস্ত্রচুক্তি নিয়ে প্রবল আপত্তি জানিয়ে ছিল চিন। রাশিয়াকে পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল যাতে কোনওভাবেই ভারতের হাতে অস্ত্র তুলে দেওয়া না হয়। তবে বেজিংয়ের সেই দাবির মুখে ছাই দিয়ে মিসাইল সিস্টেম ভারতে পাঠাচ্ছে রাশিয়া।

সূত্রের খবর ভারত চিন সীমান্ত সমস্যার মধ্যেই রাশিয়ার এই মিসাইল সিস্টেম পাঠানোর সিদ্ধান্তকে একেবারেই সমর্থন করেনি চিন। স্টেট মিডিয়া পিপলস ডেইলিতে সেই বার্তাও প্রকাশিত হয়। তবে রাশিয়া জানিয়ে দিয়েছে আগামী দুই থেকে তিন মাসের মধ্যে এই অত্যাধুনিক সমরাস্ত্র হাতে পাবে ভারত।

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা