মস্কো:  করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত চিন। বিশেষ করে ভয়ঙ্কর এই ভাইরাসের উৎপত্তিস্থল চিনের উহান শহর এখন কার্যত ‘ভূত-উপত্যকা’য় পরিণত হয়েছে। পুরো শহরকে কড়া নিরাপত্তায় মুড়ে ফেলা হয়েছে। চিনের অন্যান্য জায়গায় যাতে ভয়াবহ এই রোগ ছড়িয়ে না পড়ে সেজন্যে উহান শহর থেকে কাউকে বের হতে দেওয়া হচ্ছে না। সন্ধ্যা নামলেই অন্ধকারে ডুবে গোটা শহর। ইতিমধ্যে উহান শহরে আটকে পড়া ভারতীয়দের এয়ারলিফট করে ফিরিয়ে আনা হয়েছে দেশ। শুধু ভারতই নয়, পাকিস্তান বাদে সমস্ত দেশই তাঁদের নাগরিকদের দেশে ফিরিয়ে আনার কাজ চালাচ্ছে।

তেমনই নাগরিকদের ফিরিয়ে আনতে চিনে সামরিক বিমান পাঠাল রাশিয়া। মঙ্গলবার উহান শহরে আটকে পড়া ১৩০ জনেরও বেশি রুশ নাগরিককে দেশে ফেরানোর কথা রয়েছে। এক প্রতিবেদনে এমনটাই জানাচ্ছে সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা। চিনের নিযুক্ত রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত আন্দ্রে ডেনিসভ জানিয়েছেন, সামরিক বিমানগুলি পাঠানোর ব্যাপারে মঙ্গলবার চিনের প্রশাসনের কাছ থেকে লিখিত অনুমতি পেয়েছে মস্কো। আর তার পরেই সেখানে সামরিক বিমানগুলি পাঠানোর সিদ্ধান্ত রাশিয়ার।

চিন থেকে ফেরা রুশ নাগরিকদের ১৪ দিন আলাদা করে রাখা হবে বলে জানা গিয়েছে। আর এই ১৪ দিন সবরকম পরীক্ষা করা হবে এই সমস্ত নাগরিকদের। আর এরপরেই পরিবারের হাতে চিন ফেরত নাগরিকদের তুলে দেওয়া হবে বলে সে দেশের প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে।

এদিকে চিনে ইস্যু করা সব ভিসা বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত। এই নজিরবিহীন পদক্ষেপের অর্থ হচ্ছে, কোনও চিনের নাগরিক বা চিনের বসবাসরত অন্য দেশের কোনও নাগরিক ইতোপূর্বে ভারতীয় ভিসা পেয়ে থাকলেও এখন আর তারা ভারতে ঢুকতে পারবে না। প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে লালচিনে ৪০০ এরও বেশি মানুষের মৃত্যুর পর এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে দিল্লি।

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।