মস্কো: দাওয়াই নেই ভরসা তাই প্লাজমা থেরাপি দিয়ে সুস্থ করে তোলা। কিন্তু করোনা সংক্রমণ রোখার পথ কি শুধুই সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্য বিধি নিয়ম ? এই প্রশ্নের জবাব দিতে কোমর বেঁধে নামল রুশ দেশ। শুরু হয়েছে গণহারে অ্যান্টিবডি পরীক্ষা। এর ফলে আক্রান্তদের সঠিক তথ্য উঠে আসবে।

করোনা সংক্রমণ হু হু করে বাড়ছে রাশিয়াতে। ওয়ার্ল্ডোমিটার জানাচ্ছে, সংক্রামক রোগীর নিরিখে আমেরিকা, স্পেনের পরেই উঠে এসেছে রাশিয়ার নাম। ২ লক্ষ ৭২ হাজারের বেশি করোনা আক্রান্ত। মৃত ২,৫০০ পেরিয়েছে।

এই অবস্থায় করোনা রোগী চিহ্নিত সঠিক হলে সংক্রমণ কমবে। এমনই মনে করছে রুশ সরকার। সেই মতো রাজধানী মস্কোতে শুরু হচ্ছে অ্যান্টিবডি পরীক্ষা।

রোজ প্রায় ৭০ হাজার বাসিন্দাকে বিনা মূল্যে রক্ত পরীক্ষা করানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

গণহারে এরকম অ্যান্টিবডি পরীক্ষায় করোনা আক্রান্তদের দ্রুত চিহ্নিত করে চিকিৎসা সম্ভব। এতে মৃত্যুর এবং সংক্রমণ হার কমবে।

গত বছর ডিসেম্বরে চিনে ধরা পড়ে মারণ করেনার অস্তিত্ব। তারপর থেকে করোনা সংক্রমণে চলতি মে মাস পর্যন্ত বিশ্বজুড়ে ৩ লক্ষের বেশি মত। চিনের পড়শি হয়েও ডিসেম্বর থেকেই নিজেকে করোনা হামলা থেকে বাঁচিয়ে রেখেছিল রাশিয়া। সম্প্রতি রাশিয়ায় করোনা হামলা বিরাট আকার নিতে চলেছে।

এই অবস্থায় ভ্লাদিমির পুতিন সরকার অ্যান্টিবডি পরীক্ষার উপর জোর দিল। তবে এর পাশাপাশি করোনাভাইরাস পরীক্ষাও করা হবে।

মস্কোর মেয়র সের্গেই সোবায়ানিন বলেন, প্রকৃত সংক্রমণের শিকার কতজন তার পূর্ণ হিসেব মেলেই না।
অ্যান্টিবডি পরীক্ষায় আসল তথ্য উঠে আসবে।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV