মস্কো: ইতিমধ্যেই বিশ্বের প্রথম ভ্যাক্সিন রেজস্টার করেছে রাশিয়া। এবার আরও একটি ভ্যাক্সিন আনতে চলেছে মস্কো। খুব বেশি দেরি নেই। অক্টোবরেই আসছে সেই ভ্যাক্সিন। ১৫ অক্টোবরেই ভ্যাক্সিন আনা হবে বলে জানানো হয়েছে।

দ্বিতীয় ভ্যাকসিন মানব শরীরে আরও বেশিদিন ইমিউনিটি বাঁচিয়ে রাখবে বলে দাবি রাশিয়ার বিজ্ঞানীদের। রাশিয়ার স্টেট রিসার্চ সেন্টার অফ ভায়েরোলজি অ্যান্ড বায়োটেকনোলজি ভেক্টর এমনই দাবি করেছে।

ভেক্টরের দাবি এবারের ভ্যাকসিন মানুষের শরীরে করোনা প্রতিরোধ ক্ষমতা বজায় রাখবে ছয় মাসেরও বেশি সময় ধরে। ভেক্টরের প্রধান আলেকজান্ডার রিজিকোভ জানান হয়তো সারাজীবনের জন্য রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি করতে পারবে না এই ভ্যাকসিন। তবে আগের ভ্যাকসিনের তুলনায় সময় বেশি পাবেন মানুষ। ছয় মাস ধরে এই ভ্যাকসিনের কার্যকারীতা বজায় থাকবে বলে জানিয়েছেন আলেকজান্ডার।

ইনস্টাগ্রামে এক লাইভ অনুষ্ঠান চলাকালীন তিনি জানান একথা। প্রয়োজনে এই ভ্যাকসিন দ্বিতীয়বারও নেওয়া যেতে পারে বলে জানিয়েছেন তিনি। তাঁর বক্তব্যকে উদ্ধৃত করে রাশিয়ান সংবাদ সংস্থা তাস জানিয়েছে ফের ভ্যাকসিন নেওয়া নিরাপদ ও কার্যকরী। এমনই দাবি করেছে ভেক্টর।

আলেকজান্ডার জানান, এই ভ্যাকসিনের যতদূর ট্রায়াল চলেছে, তাতে কোনও পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। প্রথম পর্যায়ের ট্রায়ালে বেশ সাফল্যের সঙ্গেই কাজ করছে এই ভ্যাকসিন। এখনও পর্যন্ত নিরাপদ বলা চলে ভ্যাকসিনটিকে, জানাচ্ছে ভেক্টর। প্রায় ১৫০০ প্রাণীর ওপর এর ট্রায়াল চলেছে বলে খবর। মানুষ ছাড়া ভিন্ন ভিন্ন প্রজাতির প্রাণীর ওপর ট্রায়াল চলেছে।

২১শে জুলাই রাশিয়ার দ্বিতীয় ভ্যাকসিন ট্রায়ালের জন্য ছাড়পত্র পায়। রাশিয়ার স্বাস্থ্য মন্ত্রক জানায়, এই ভ্যাকসিন নিয়ে পরীক্ষা নিরীক্ষা শুরু করা যেতে পারে। ২৭শে জুলাই স্বেচ্ছাসেবকদের রেজিস্ট্রেশন শুরু হয়। ৩০শে সেপ্টেম্বরের মধ্যে বেশ কয়েক ধাপ এগিয়ে যেতে পারবে এই ভ্যাকসিন আশা করা হচ্ছে।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।