আরও শক্তিশালী হল রাশিয়া। কৃষ্ণসাগরের সামরিক মহড়া থেকে সুপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে মস্কো। গত শুক্রবার শক্তিশালী এই মহড়া অনুষ্ঠিত হয়। ক্ষেপণাস্ত্র মহড়ার বিষয়ে রাশিয়া একটি ফুটেজ প্রকাশ করেছে। সে দেশের একাধিক জাতীয় সংবাদমাধ্যমে সেই মিসাইল পরীক্ষার ফুটেজ তুলে ধরা হয়েছে।

তারানতুল-৩ ক্লাস করভেট ইভানোভেট থেকে সুপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র ছোঁড়া হয়। জাহাজ বিধ্বংসী পি-২৭০ মোসকিট ক্ষেপণাস্ত্র ৩০ নটিক্যাল মাইল দূরের লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানে। সুপারসনিক মোসকিট ক্ষেপণাস্ত্র শত্রুর ২০ হাজার টন ওজনের জাহাজ ধ্বংস করার লক্ষ্য নিয়ে তৈরি করা হয়েছে। শক্তিশালী এই ক্ষেপণাস্ত্র ৯০ কিলোমিটার দূরের লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত করতে সক্ষম।

মোসকিট ক্ষেপণাস্ত্র সমুদ্র উপরিভাগের খুব কাছ দিয়ে উড়ে যেতে সক্ষম। ফলে এই অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্র যে কোনও দেশের শত্রুর রাডার এড়াতে পারবে, এমনটাই জানাচ্ছে সে দেশের বিজ্ঞানীরা। এছাড়া, শত্রুর ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাও এড়ানোর ক্ষেত্রে মোসকিট খুব দ্রুত ও সতর্কতার সঙ্গে বাক খেতে সক্ষম। সব মিলিয়ে আমেরিকার মতো শক্তিদেশকে বার্তা দিতে আরও কড়া মিসাইল ছুঁড়ল রাশিয়া।