মস্কো: বিশ্বের সর্ববৃহৎ রাষ্ট্র রাশিয়ায় এবার সংবিধান সংশোধনের জন্য আনা প্রস্তাবের উপর ভোট গ্রহণ শুরু হল। এখন এক সপ্তাহ ধরে এই ভোট গ্রহণ পর্ব চলবে। রুশ নাগরিকেরা এই সংশোধন প্রস্তাব অনুমোদন করলে তখন আরও দু’টি প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করতে পারবেন বর্তমান প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। আনুষ্ঠানিকভাবে আগামী ১ জুলাই এই ভোটগ্রহণ শুরুর কথা ছিল।

কিন্তু করোনাভাইরাস সংক্রমণ এড়াতে যাতে ভিড় না হয় তার জন্য এক সপ্তাহ আগেই ভোটকেন্দ্র খুলে দেওয়া হয়। রাশিয়ার বর্তমান সংবিধান অনুযায়ী, এক ব্যক্তি একটানা দুবারের বেশি প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করতে পারেন না। রুশ প্রেসিডেন্ট সম্প্রতি দেশের সংবিধান সংশোধনের খসড়ায় স্বাক্ষর করেছেন।

সংসদের দুই কক্ষেও তা অনুমোদন লাভ করেছে। সংশোধনের প্রস্তাবটি এবার গণভোটে অনুমোদন পেলে তখন পুতিন ২০২৪ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারবেন। সেই সঙ্গে ২০৩০ সালের নির্বাচনেও তার অংশগ্রহণের পথ সুগম হবে।

সে ক্ষেত্রে তার ২০৩৬ সাল পর্যন্ত ক্ষমতায় থাকার পথ খুলে যাবে বলে মনে করা হচ্ছে। করোনাভাইরাসের সংক্রমন ঠেকাতে দেশের ভোট কেন্দ্রগুলিতে মাস্ক এবং হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ করা হচ্ছে। পাশাপাশি পরামর্শ দেওয়া হয়েছে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ভোট দিতে।

তবে সরকার বিরোধীরা সংবিধান সংশোধনের ভোটের বিরোধিতা করেছেন। বিরোধী নেতা অ্যালেক্সি নাভানলির বক্তব্য, এভাবে গণভোটের আয়োজন করে সরকার সংবিধান লঙ্ঘন করছে। তবে পুতিনের জনপ্রিয়তার কারণে সংবিধান সংশোধনের প্রস্তাবটি অনুমোদন লাভ করবে বলেই বিভিন্ন মহল মনে করছে।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ