মস্কোঃ  অন্তত তিন লক্ষ সেনা নিয়ে বিশাল সামরিক মহড়া শুরু করেছে রাশিয়া। এতে হাজার হাজার ট্যাংক, বিমান ও যুদ্ধজাহাজ অংশ নিয়েছে। সামরিক পর্যবেক্ষকদের মত, এটাই রাশিয়ার অন্যতম বৃহত সামরিক মহড়া। মূলত আমেরিকার দাদাগিরি রুখতেই বিশাল এই মহড়া রাশিয়ান সেনাবাহিনীর।

রুশ সীমান্তে চলা বিশাল এই মহড়ায় রাশিয়ার সেনাদের সঙ্গে অংশ নিচ্ছে চিন ও মঙ্গোলিয়ার কয়েক হাজার সেনা। মঙ্গলবার থেকে শুরু হওয়া মহড়া চলবে ১৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। রাশিয়া বলেছে, স্নায়ুযুদ্ধ পরবর্তী এটাই সবচেয়ে বড় মহড়া।

রুশ প্রতিরক্ষা দফতর থেকে প্রকাশিত ছবিতে রাশিয়ান সামরিক বাহিনীর ট্যাংক, সাঁজোয়াযান ও যুদ্ধজাহাজদের দেখা গিয়েছে। পাশাপাশি কম্ব্যাট হেলিকপ্টার ও যুদ্ধবিমানকে প্রাথমিক প্রস্তুতির পর্যায়ে দেখা গেছে। চলতি মহড়ায় বেশকিছু নতুন যুদ্ধ সরঞ্জাম প্রথমবারের মতো প্রদর্শন করা হবে। এছাড়া, এয়ারবোর্ন ট্রুপসও মোতায়েন করা হচ্ছে। ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ বলেছেন, বর্তমানে বিশ্ব পরিস্থিতিতে এই ধরনের সামরিক মহড়া চালানো জরুরি হয়ে পড়েছিল।

অন্যদিকে, চিনা প্রেসিডেন্ট জি জিনপিং ইতিমধ্যেই রাশিয়াতে পৌঁছে গিয়েছেন। মহড়ায় চিনের সাতে তিন হাজার সেনার অংশগ্রহণের প্রশংসা করে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, চিনের সঙ্গে মস্কোর দিন দিন সম্পর্ক ঘনিষ্ঠ হচ্ছে। রুশ সামিরক বাহিনীর সর্বাধিনায়ক হিসেবে তিনি সপ্তাহের শেষ দিকে মহড়া পরিদর্শন করবেন।