অমরাবতী: এও এক এলাকা দখলের লড়াই। তবে কোনও বোমাবাজি বা হিংসা সৃষ্টি নয়। বিরোধীদের ঠেকাতে রাস্তার মাঝেই পাঁচিল তুলল শাসকপক্ষ।

ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণের রাজ্য অন্ধপ্রদেশের গুন্টুর জেলার পনুগুপাদু গ্রামে। ওই গ্রামে রাজ্যের বিরোধী দল তেলেগু দেশম পার্টির(টিডিপি) কর্মী সমর্থকদের ঠেকাতে রাস্তার মাঝেই তিন ফুটের পাঁচিল তুলে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে শাসক ওয়াইএসআরপি কংগ্রেসের বিরুদ্ধে।

আরও পড়ুন- শুভেন্দু কথা না রাখায় বিপ্লবের তৃণমূল ছাড়ার জল্পনা রাজনৈতিক মহলে

যদিও শাসকদলের পক্ষ থেকে রাস্তার মাঝে পাঁচিল তোলার অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে। তাঁদের দাবি, যেখানে পাঁচিল দেওয়া হয়েছে সেটি কোনও সরকারি জায়গা ন্য। ব্যক্তিগত সম্পত্তির উপরে পাঁচিল দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে আরও বলা হয়েছে যে ওই পাঁচিলের সঙ্গে দলের ওয়াইএসআর কংগ্রেসের কোনও যোগ নেই। দলের কোনও কর্মী বা সমর্থক জড়িত থাকলেও থাকতে পারে বলেও জানিয়েছে অন্ধপ্রদেশের শাসকপক্ষ।

অন্যদিকে, টিডিপি দাবি করেছে যে সরকারি রাস্তার উপরেই পাঁচিল দিয়েছে শাসকদলের লোকেরা। দশকের পর দশক ধরে ওই রাস্তা গ্রামের সাধারণ মানুষ ব্যবহার করে আসছেন। বিরোধিদের ঠেকাতেই পাঁচিল দেওয়া হয়েছে এবং পরে ব্যক্তিগত জায়গা বলে দাবি করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন টিডিপি। পরিস্থিতি সামাল দিতে এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বিষয়টি মীমাংসা করার জন্য রাজ্যের শুল্ক দফতরকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন- মুজফফরপুর মহামারির মাঝে বিশ্বকাপে মগ্ন তেজস্বী, অনুমান দলের নেতার

পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে ওই পাঁচিলের পিছনে জাতপাতের দ্বন্দ্ব রয়েছে। বিরোধী টিডিপি দলের অধিকাংশই উচ্চবর্ণের মানুষ। অন্যদিকে শাসক ওয়াইএসআরসিপি অনুগামীরা নিম্নবর্ণের মানুষ। সেই ভেদাভেদের কারণেই পাঁচিল তোলা হয়েছে। প্রতিকূলতা মেটাতে দুই পক্ষের প্রতিনিধিদের নিয়ে বৈঠক করেছিল পুলিশ। যদিও কোনও সমাধান হয়নি।

রাস্তা নিয়ে রাজনীতি ওই এলাকায় নতুন কিছু নয়। এর আগেও বহুবার এমন ঘটনা ঘটেছে। পূর্বতন সরকারের জমানায় বিরোধী ওয়াইএসআরসিপির বিরুদ্ধে নতুন তৈরি হওয়া রাস্তা কেটে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল।