ফাইল ছবি

লখনউ: প্রথম সেনা স্কুল খোলার লক্ষ্যে রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সঙ্ঘ৷ ২০২০ সালের এপ্রিলে উত্তরপ্রদেশে বুলন্দশহরের শিকারপুরে এই আর্মি স্কুলে পড়াশোনা শুরু করা যাবে বলে মনে করা হচ্ছে৷  ইকনমিক টাইমসের রিপোর্ট অনুযায়ী, এই আর্মি স্কুলে পড়ুয়াদের সেনা আধিকারিক হওয়ার প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে৷ প্রাক্তন আরএসএস প্রধান রাজেন্দ্র সিং ১৯২২ সালে এই শিকারপুরে জন্মগ্রহণ করেছিলেন এবং তারই নাম অনুযায়ী এই স্কুলের নাম হবে রজ্জু ভাইয়া সৈনিক বিদ্যা মন্দির৷

জানা গিয়েছে, সেন্ট্রাল বোর্ড অব সেকেন্ডারি এডুকেশনের সিলেবাসই মেনে চলা হবে এখানে৷ ষষ্ঠ থেকে দ্বাদশ শ্রেণির পঠন পাঠন চলবে এই স্কুলে এবং ক্লাস শুরু হবে ২০২০ সালের এপ্রিল থেকে৷

পশ্চিম উত্তরপ্রদেশ এবং উত্তরাখণ্ডের বিদ্যা ভারতী উচ্চ শিক্ষা সংস্থানের রিজিওনাল কনভেনার অজয় গোয়েল জানান, দেশে এই ধরণের মডেল ভবিষ্যতে কখা ভেবেই করা হচ্ছে৷ এবং দেশে এই প্রথম এই রকম একটি এক্সপেরিমেন্ট করা হচ্ছে৷ দেশে বিদ্যা ভারতীতে ২০,০০০-এরও বেশি স্কুল রয়েছে৷

আর্মি স্কুলের প্রথম ব্যাচের ছাত্রদের জন্য প্রসপেকটাস প্রায় তৈরি৷ আগামী মাস থেকে আবেদন পত্রও দেওয়া শুরু হবে বলে জানান গোয়েল৷ তিনি আরও বলেন, প্রথম ব্যাচে ষষ্ঠ শ্রেণিতে ১৬০ জন ছাত্রকে নেওয়া হবে৷ শহিদদের সন্তানদের জন্য ৫৬ আসন সংরক্ষিত থাকবে৷ এই স্কুলের উন্নতির জন্য অবসরপ্রাপ্ত সেনা আধিকারিকদের পরামর্শও নেওয়া হবে৷

মীরাটে আরএসএসের প্রান্ত প্রচারক অজয় মিত্তল জানান, বিদ্যা ভারতীয় অধীনে একটা আর্মি স্কুল পাওয়া সম্মানের৷ ভবিষ্যতে সেনা আধিকারিক হওয়ার স্বপ্ন পূরণ করবে এই স্কুল, মত অজয় মিত্তিলের৷