দেবময় ঘোষ, কলকাতা: মহালয়ার দিন সারা বাংলায় রুটমার্চ করবে রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সঙ্ঘ (আরএসএস)৷ প্রায় ২০ হাজার সঙ্ঘ সদস্য এবং কর্মী সারা বাংলার পাড়ায়-পাড়ায় সোমবার রুটমার্চে অংশ নেবেন৷ দারিভিট উচ্চবিদ্যালয়ে গুলিবিদ্ধ হয়ে ছাত্র মৃত্যু, নাগেরবাজারে তৃণমূল কংগ্রেস পার্টি অফিসের নীচে বোমা বিস্ফোরণ এবং তার ফলস্বরূপ শিশু মৃত্যুর ঘটনার পর রাজ্য রাজনীতি রাতিমতো উত্তপ্ত৷

পুজোর আগেই শাসক-বিরোধীরা পরস্পরকে বাক্যবাণ প্রয়োগে ব্যস্ত৷ এই পরিস্থিতিতে, বাংলার কোণায় কোণায় আরএসএসের রুটমার্চ নতুন রাজনৈতিক বার্তা দিচ্ছে৷ ইতিমধ্যেই দারিভিটের ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে সঙ্ঘকেই বিনা প্রমাণে দোষারোপ করার অভিযোগে রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে মানহানীর মামলা ঠুকেছে সঙ্ঘ৷ রাজ্যজুড়ে রুটমার্চের কর্মসূচী করে তৃণমূলকে যেন পুজোর মুখেই পালটা চ্যালেঞ্জ জানালো সঙ্ঘ৷

আরও পড়ুন: গণনাট্য সংঘের রাজ্য সম্পাদক গোরা ঘোষের জীবানাবসান

দক্ষিণবঙ্গে সঙ্ঘের এক মুখপত্র জানান, শান্তিপূর্ণ রুটমার্চে সঙ্ঘের নির্দিষ্ট পোশাক পরিহিত এবং সাধারণ পোশাকের কর্মীরাও থাকবেন৷ শুধুমাত্র খাকি পোশাকের কর্মীদের সংখ্যা প্রায় ২০ হাজার হবে৷ তবে সাধারণ পোশাকের কর্মীদের সংখ্যা গণনার মধ্যে রাখা হয়না৷

যদি তা হিসেব করা হয়, তবে সংখ্যাটি অনায়সেই ২০ হাজার ছাড়িয়ে বহুদূর যাবে৷ প্রতিটি জেলার সদর, ছোট শহর,পাড়া এবং কলকাতার এবং লাগোয়া এলাকায় রুটমার্চ বের হবে৷ সঙ্ঘের রুটমার্চের একটি পদ্ধতি আছে৷ ৪০ মিনিটের মধ্যে ৩.৫ কিলোমিটার হেঁটে যাবেন সঙ্ঘ সদস্যরা৷ সঙ্গে থাকবে আরএসএস ব্যান্ড৷ বাজবে দেশাত্মবোধক গানের সুর৷ সঙ্ঘের কর্মসূচীতে রুটমার্চ নতুন কিছু নয়৷ প্রতি বছরেরই এটি একটি ঘোষিত কর্মসূচী৷ তবে এবছরে অনেক বড় করে হবে৷ অবশ্যই প্রশাসনের নজরে পড়বে৷

আরও পড়ুন: Breaking: আনন্দপুরে তরুণী খুনের কিনারা! গ্রেফতার প্রেমিক

বিজেপির আদর্শগত গুরু আরএসএস সম্পর্কে আক্রমণের রাস্তা নিয়েছে তৃণমূল৷ শুধুমাত্র ইসলামপুরের দারিভিট উচ্চ বিদ্যালয়ের ঘটনাই নয়, নাগেরবাজারের বোমা বিস্ফোরণের পিছনেও সঙ্ঘের মাথা রয়েছে বলে দাবি করেছে তৃণমূল৷ দক্ষিণ দমদম পুরসভার পুরপ্রধান পাচু রায়কে সঙ্ঘ খুনের চেষ্টা করেছে বলে দাবি করা হয়েছে৷ পালটা, পাচুকে নকশাল বলেছে বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ৷ রাজনৈতিক উত্তাপের পারদ কতটা চড়বে তা বোঝা যাবে মহালয়ার পরই৷

আরও পড়ুন: দুশোর আগেই শেষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ ইনিংস, ফলো-অনের পথে হাঁটল ভারত