নয়াদিল্লি: বর্তমান পরিস্থিতিতে নরেন্দ্র মোদী যেভাবে ডলারের বিদেশ থেকে ঋণ নিতে চলেছেন তাকে একেবারেই ভাল চোখে দেখছে না সঙ্ঘ-পরিবার ৷ কারণ সেখান থেকেই এই বিষয়ে আপত্তি উঠল। রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সঙ্ঘের অর্থনীতি বিষয়ক শাখা সরকারকে ‘ফরেন ক্যারেন্সি বন্ড’ ছাড়ার বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করার কথা বলেছে ৷ কারণ এমন পদক্ষেপ দেশবিরোধী এবং তা দীর্ঘমেয়াদে দেশের অর্থনীতিকে ঝুঁকির মুখে ফেলতে পারে বলে আশংকা করেছে ৷

রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সঙ্ঘের অধীনস্ত সংগঠন স্বদেশি জাগরণ মঞ্চ একেবারে বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছে, এমন পদক্ষেপ বিপজ্জনক হতে পারে।সংগঠনের আহ্বায়ক অশ্বিনী মহাজনের বক্তব্য, কম সুদ মেটাতে হবে মনে করে বিদেশ থেকে ঋণ নিতে গিয়ে ঋণের ফাঁদে পড়ার আশংকা থাকে৷ তাছাড়া এসব ক্ষেত্রে দেশের ভিতরে মুদ্রাস্ফীতি বেড়ে যাওয়ারও একটা ঝুঁকি থেকে যাবে? তিনি আত্মবিশ্বাসী, সরকার এমন সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করবে৷

প্রসঙ্গত, অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন জানিয়েছিলেন, সরকার বিদেশে সরকারি গ্যারান্টিযুক্ত বন্ড ছেড়ে ডলারে ঋণ করবে। কম সুদে ঋণ পেতেই এমন পরিকল্পনা। যদিও ক্ষুব্ধ অশ্বিনী মহাজনের বক্তব্য, দেখতে হবে সরকারের কাছে কারা এমন সুপারিশ পাঠাচ্ছে , অবিলম্বে সেই সব লোকদের মুখোশ খুলে দেওয়া দরকার।

তবে শুধু স্বদেশি জাগরণ মঞ্চ বলে নয় ইতিমধ্যেই মোদী সরকারের এমন পরিকল্পনা ঘিরে প্রশ্ন তুলেছেন রিজার্ভ ব্যাংকের প্রাক্তন গভর্নর রঘুরাম রাজনও। যখন রাজন রিজার্ভ ব্যাংক গভর্নর ছিলেন তখন তাঁর কাজ নিয়ে প্রায়ই সমালোচনা করতে দেখা যেত স্বদেশি জাগরণ মঞ্চকে কিন্তু এ বার এই ইস্যুতে মোদী সরকারের সমালোচনায় রঘুরামের পাশে মঞ্চকে দেখা গেল।