নয়াদিল্লি: বঙ্গোপসাগরের উপর গ্রেট নিকোবর দ্বীপে ১০,০০০ কোটি টাকা লগ্নি করে ট্রান্সশিপমেন্ট পোর্ট গড়ার কথা ভাবছে ভারত। এর দ্বারা জাহাজগুলি পণ্য ওঠানামা করানোর জন্য বিকল্প একটা বন্দর পাবে। সোমবার প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদী একথা জানান।

তিনি এদিন উদ্বোধন করেন প্রথম সমুদ্রের তলা দিয়ে যাওয়া অপটিক্যাল ফাইবার প্রকল্প যা আন্দামান এবং নিকোবর দ্বীপপুঞ্জকে হাই স্পিড ইন্টারনেট পরিষেবা দেবে। ২৩১২ কিলোমিটার দীর্ঘ সাবমেরিন অপটিক্যাল ফাইবার কেবল চেন্নাই থেকে আন্দামান এবং নিকোবর দ্বীপপুঞ্জে বসাতে খরচ ১২২৪ কোটি টাকা।

এর ফলে আরও উন্নত এবং সস্তায় যোগাযোগ ব্যবস্থা হবে বলে জানানো হয়েছে। ভিডিও লিংক এর মাধ্যমে এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভাষণ দিতে গিয়ে তিনি জানালেন, প্রস্তাব রয়েছে ১০০০০ কোটি টাকা খরচ করে গ্রেট নিকোবরে ট্রান্সশিপমেন্ট পোর্ট গড়ার। বন্দর তৈরি হলে বড় বড় জাহাজগুলি এখানে মাল খালাস করতে পারবে।

এরকম কন্টেনার ট্রান্সশিপমেন্ট টার্মিনাল বঙ্গোপসাগরের উপর আন্দামন নিকোবরে গড়ে উঠলে কৌশলগতভাবে এবং ভৌগলিক দিক থেকে সুবিধা পেতে পারে। ব্যস্ত আন্তর্জাতিক পূর্ব-পশ্চিম জাহাজ পথের খুব কাছেই অবস্থিত হওয়ায় মাল পরিবহন সুবিধা হবে এবং আর্থিক দিক থেকেও সুবিধাজনক হবে। প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, এর ফলে উপকূলবর্তী বাণিজ্য বাড়বে এবং কর্মসংস্থানের সুযোগ হবে।

আন্দামান-নিকোবর দ্বীপপুঞ্জের প্রশাসক গত বছর কন্টেইনার ট্রান্সশিপমেন্ট টার্মিনালের জন্য এক্সপ্রেশন অফ ইন্টারেস্ট জারি করেছে। প্রধানমন্ত্রী জানান, আন্দামান নিকোবর হয়ে উঠবে বন্দর ভিত্তিক হাব ও তার উন্নয়ন হবে যেহেতু বিশ্বের অন্যান্য বন্দরের সাপেক্ষে এই বন্দরের দূরত্ব প্রতিযোগিতামূলক ।

সরকারের নজর এখন সহজে ব্যবসা করার ব্যবস্থা করার দিকে এবং উপকূলীয় লজিস্টিক সরলীকরণ করার ব্যাপারে। এই সমুদ্র তলা দিয়ে কেবল যাওয়ায় ইন্টারনেট যোগাযোগ যেমন আরো উন্নত হবে এবং পাশাপাশি তেমনই পর্যটন শিল্প চাঙ্গা হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা