স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: রোজভ্যালি কাণ্ডের তদন্তে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট ফের তলব করল দুই তৃণমূল সাংসদ তাপস পাল ও সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়কে৷ আগামী শুক্রবার উত্তর কলকাতার সাংসদকে হাজিরা দিতে বলা হয়েছে৷ তাপস পালকে হাজিরার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে আগামী বৃস্পতিবার৷

গত বেশ কয়েক মাস ধরেই রোজভ্যালি ও সারদা তদন্তে গতি বাড়িয়েছে কোন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা৷ গত অগাস্টেই রোজভ্যালি কাণ্ডে নতুন করে একটি মামলা দায়ের করে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। রোজভ্যালি এন্টারটেইনমেন্ট, হোটেল ও রিয়েল এস্টেট সংস্থার বিরুদ্ধেই আর্থিক তছরুপের অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

তদন্তের স্বার্থে রোজভ্যালির এই তিন সংস্থার কর্তাকেই জিজ্ঞাসাবাদ করতে চায় ইডি। সংস্থার কর্তাদের সমন পাঠাতে চায় ইডি। এই মর্মেই আদালতে আবেদন জানিয়েছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাটি।

আরও পড়ুন: তিন রাজ্যের শিশুদের বিষাক্ত পোলিও টিকা দেওয়া হয়েছে, স্বীকার স্বাস্থ্যমন্ত্রকের

কেবল ওই তিন সংস্থার কর্তাদেরই নয়৷ জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে রোজভ্যালি কাণ্ডে অভিযুক্ত শাসক দলের দুই সাংসদকেও৷

এর আগে ১৩ মাস জেলে ছিলেন কৃষ্ণনগরের সাংসদ৷ তিনটি বেআইনী অর্থ লগ্নি সংস্থার বিরুদ্ধে প্রাক্তণ রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়কে চিঠি দিলেও রোজভ্যালি প্রসঙ্গে নীরব ছিলেন তিনি৷ কেন এই নীরবতা? তদন্তকারীদের প্রশ্নের সদুত্তোর দিতে ব্যর্থ হন তাপস পাল৷ সেই অভিযোগেই তাঁকে গ্রেফতার করে সিবিআই৷

অন্যদিকে, রোজভ্যালির ব্যবসা সম্প্রসারণের অভিযোগে সিবিআই গ্রেফতার করে উত্তর কলকাতার সাংসদকে৷ প্রায় ১৩৬ দিন ওডিশায় জেলবন্দী ছিলেন তিনি৷ লোকসভা ভোট যত এগিয়ে আসছে, সারদা-নারদা, রোজভ্যালি কাণ্ডের তদন্তের ততই গতি বাড়িয়েছে সিবিআই ও ইডি। তৃণমূলের বিরুদ্ধে কেন্দ্রীয় সরকারের রাজনৈতিক চক্রান্তের অভিযোগে সরব রাজ্যের শাসক দল৷