ছবি: প্রতীকী৷

কলকাতা: রোজভ্যালিকান্ডে ফের শহরে ইডির হানা৷ রোজভ্যালির প্রাক্তন আধিকারিকের বাড়িতে হানা দেয় এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)।

বৃহস্পতিবার সকালে ইডির আধিকারিকরা ৫টি দলে বিভক্ত হয়ে তল্লাশি অভিযানে নামে৷ তল্লাশি চলে রোজভ্যালি কর্তা গৌতম কুন্ডুর স্ত্রী শুভ্রা কুন্ডুর বাড়িতেও৷ যদিও তল্লাশির সময় তিনি বাড়িতে ছিলেন না৷

এর আগে রোজভ্যালি কর্তা গৌতম কুন্ডুর স্ত্রী শুভ্রা কুন্ডুকে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টর (ইডি) তলব করেছিল৷ একাধিকবার তার বাড়িতে নোটিস দেওয়া হলেও তিনি ইডি দফতরে হাজির হননি। তারপরই আজ বৃহস্পতিবার শুভ্রা কুন্ডুর বাড়িতে পৌঁছে যায় ইডির আধিকারিকরা৷

যদিও বহুদিন আগে রোজভ্যালি কাণ্ডে প্রধান অভিযুক্ত গৌতম কুণ্ডুর স্ত্রী শুভ্রা কুণ্ডুকে জিঞ্জাসাবাদ করেছিল ইডি৷ সেবার তিনি সন্ধেবেলা সল্টলেকের ইডি দফতরে বোরখা পড়ে হাজিরা দেন৷ তাঁকে টানা তিন ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে জেরা করেছিল তদন্তকারী অফিসারেরা৷

আরও পড়ুন – দারুণ খবর, বিয়ে করলেই সোনা দেবে বিজেপি সরকার

ইডি সূত্রে খবর, শুভ্রা কুন্ডুদের অলংকার বিপণির টাকার হিসেবে গড়মিল ধরা পড়েছে। সেখানে ১১০ কোটি টাকার হিসেব মিলছে না। ওই বিপুল পরিমাণ টাকার কি হলো, তা জানতে চায় ইডি৷ এছাড়া তার নামে একাধিক প্যান কার্ড রয়েছে৷

প্রসঙ্গত, বেআইনি অর্থলগ্নি সংস্থা ‘রোজভ্যালি’র নামে বাজার থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা তোলার দায়ে হাজতবাস করছেন গৌতম কুণ্ডু৷ অভিযোগ, বাজার থেকে তোলা অর্থ তিনি জুয়েলারি সংস্থায় বিনিয়োগ করেছেন৷

ইতিমধ্যেই রোজভ্যালি কাণ্ডে চার্জশিট জমা দিয়েছে ইডি৷ ১৭ হাজার ৫২০ কোটি টাকা প্রতারণা মামলার চার্জশিট জমা পড়েছে বিশেষ সিবিআই আদালতে৷ চার্জশিটে নাম রয়েছে গৌতম কুণ্ডু-র৷ এছাড়া রয়েছে রোজ ভ্যালি হোটেল এন্টারটেনমেন্টের নামও৷ যাদের বিরুদ্ধে টাকা নয়ছয়ের অভিযোগও রয়েছে৷