তুরিন: রেকর্ডের জন্য খেলেন রোনাল্ডো! সমালোচকরা সিআর সেভেনের নামে দুর্নাম করলেও খুব ভুল বলেন কি? রোনাল্ডো মানেই তো রেকর্ড৷ তা রোনাল্ডো যে ক্লাবেই খেলুন না কেন? ক্লাবের পুরনো রেকর্ড তিনি ভাঙবেনই৷ শনিবার যেমন গোল করে নতুন রেকর্ড গড়লেন ক্রিশ্চিয়ানো৷

জুভেন্তাসের জার্সি গায়ে চাপিয়ে সবে পাঁচ মাস কেটেছে পর্তুগিজ তারকার৷ এর মধ্যেই ক্লাবের ইতিহাসে কোনও এক মরশুমে পর্তুগিজ ফুটবলারদের মধ্যে সর্বাধিক গোল করার কীর্তি গড়ে ফেললেন ক্রিশ্চিয়ানো৷

শনিবার স্যাম্পডোরিয়ার বিরুদ্ধে জোড়া গোল করেছেন রোনাল্ডো৷ সেই সঙ্গে তিন দশক আগের রেকর্ড ভেঙে দেন সিআর৷ এর আগে সিরি এ লিগে’তে কোনও এক মরশুমে পর্তুগিজ ফুটবলারদের মধ্যে রুই বারোস ১২ টি গোল করেছিলেন(১৯৮৮-৮৯মরশুমে)৷ এদিন জোড়া গোল করে অভিষেক মরশুমে এখনই ১৪ গোল হয়ে গেল ক্রিশ্চিয়ানোর৷ অর্থাৎ ইতালির লিগে পর্তুগিজ তারকাদের মধ্যে কোনও মরশুমে সর্বাধিক গোল দেওয়ার রেকর্ড এখন সিআর সেভেনের ঝুলিতে৷

সেই সঙ্গে ২০১৮ সালে সব ধরণের প্রতিযোগিতা মিলিয়ে জুভেন্তাসের শততম গোলটি এল রোনাল্ডো’র পা থেকে৷ ম্যাচের দু’মিনিটে ডানদিকের উইং থেকে দিবালা সেন্টার করলে বিপক্ষের জালে বল জড়াতে ভুল করেননি রন৷ ৩৩ মিনিটে এরপর পোনাল্টি থেকে গোল চাপিয়ে স্যাম্পডোরিয়ার হয়ে ফাবিও স্কোরলাইন ১-১ করে৷ রোনাল্ডোদের বছর শেষ কি তবে ড্র দিয়ে? মাঠে জুভেন্তাসের খেলা দেখে সিঁদুরে মেঘ দেখতে শুরু করে দেন জুভে সমর্থকরা৷

চিত্রনাট্য পাল্টে দিলেন সেই রোনাল্ডোই৷ দ্বিতীয়ার্ধে ৬৫ মিনিটে বক্সের মধ্য হ্যান্ডবল করে বিপক্ষ ভুল করলে পরে পাওয়া চোদ্দ আনা পোনাল্টির সুযোগ পায় জুভেন্তাস৷ সহজ সুযোগে গোল করে জুভেন্তাসকে ২-১ এগিয়ে দেন ক্রিশ্চিয়ানো৷

ম্যাচের শেষে নাটকীয়তা কম হয়নি৷ সবাই যখন ধরে নিয়েছে বছর শেষে তিন পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়ছে জুভেন্তাস৷ দ্বিতীয়ার্ধের ইনজুরি টাইমে তখনই আক্রমণে গতি বাড়িয়ে বক্সের ভিতর থেকে কামান দাগা শটে সাপোনারা স্কোরলাইন ২-২ করে৷ যদিও সহকারী ভিডিও রেফারির সাহায্যের পর সেই গোল অফসাইডের জন্য বাতিল হয়৷ জুভেন্তাস ম্যাচ জেতে ২-১ ব্যবধানে৷