রোম: এমন রেকর্ড হয়তো কোনওভাবেই চাননি পর্তুগিজ মহাতারকা কিংবা তাঁর অনুরাগীরা। কিন্তু বুধবার এমনই অযাচিত এক রেকর্ড গড়ে ফেললেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। কেরিয়ারে প্রথমবার টানা দু’টি প্রতিযোগীতার ফাইনালে হারলেন পর্তুগিজ মহাতারকা। গতবছর মরশুম শেষে জুভেন্তাসের হয়ে সুপারকোপা ইতালিয়ার ফাইনালে ল্যাজিওর কাছে হেরেছিলেন রোনাল্ডো। বুধবার পেনাল্টি শুট আউটে নাপোলির কাছে হেরে কোপা ইতালিয়া হাতছাড়া হল ‘ওল্ড লেডি’র।

নির্ধারিত সময় গোলশূন্য থাকার পর টাইব্রেকারে এদিন নিষ্পত্তি হয় কোপা ইতালিয়া ফাইনালের। ৪-২ ব্যবধানে পেনাল্টি শুট আউটে বাজিমাত করে খেতাব ঘরে তুলল গাত্তুসোর ছেলেরা। পেনাল্টি শুট আউটে এদিন জুভেন্তাসের হয়ে পেনাল্টি নষ্ট করেন পাওলো দিবালা এবং দানিলো। অথচ প্রথম চারটি স্পট-কিক নিতে এগিয়ে আসেননি রোনাল্ডো। পঞ্চম কিকটি নেওয়ার কথা ছিল তাঁর। কিন্তু তার আগেই ম্যাচ পকেটে পুড়ে নেয় নাপোলি। আর তা নিয়েই নেটিজেনদের সমালোচনায় বিদ্ধ হতে হচ্ছে রোনাল্ডো।

গত ১১ বছরে এই প্রথমবার কোপা ইতালিয়ার ফাইনাল নিষ্পত্তি হল টাইব্রেকারের মাধ্যমে। ২০ জুন সিরি-এ শুরুর আগে এই ট্রফি জয় বাড়তি আত্মবিশ্বাস জোগাবে, সেটা ধরে নিয়েই এদিন মেগা ফাইনালে নেমেছিল দু’দল। কিন্তু নির্ধারিত সময় গোলশূন্য অবস্থায় শেষ হয়। পুরো সময়টাই মাঠে ছিলেন জুভেন্তাসের মধ্যমনি রোনাল্ডো। গোটা ম্যাচে এদিন গোল লক্ষ্য করে তিনটি শট নেন ক্রিশ্চিয়ানো। যার মধ্যে একটি অন-টার্গেট ছিল। কিন্তু লক্ষ্যে সফল হতে পারেননি তিনি। তার উপর পেনাল্টি না নিতে যাওয়ায় সমর্থকেরা বেশ ক্ষুব্ধ হয়েছেন তাদের প্রিয় নায়কের প্রতি।

সবমিলিয়ে লকডাউন পরবর্তী সময় মাঠে ফেরাটা খুব একটা সুখের হল না পর্তুগিজ সুপারস্টারের। এসি মিলানের বিরুদ্ধে দিনকয়েক আগে কোপা ইতালিয়ার দ্বিতীয় লেগের সেমিফাইনালে পেনাল্টি মিস করেছিলেন সিআর সেভেন। ওই ম্যাচটিও গোলশূন্য অবস্থায় শেষ করেছিল জুভে। কিন্তু করোনার আগে অনুষ্ঠিত প্রথম লেগের ফলাফলের উপর ভিত্তি করে ফাইনালে পৌঁছয় মৌরিজিও সারির দল। অ্যাওয়ে ম্যাচে মিলানের বিরুদ্ধে ১-১ শেষ করেছিলেন রোনাল্ডোরা।

সিরি-এ লিগ টেবিলের শীর্ষে থাকলেও কোপা ইতালিয়া ফাইনালের হার যে কিছুটা হলেও রোনাল্ডোদের আত্মবিশ্বাসে ঘাটতি জোগাবে সে আর বলার অপেক্ষা রাখে না। তার উপর দ্বিতীয়স্থানে থাকা ল্যাজিওর সঙ্গে পয়েন্টের ব্যবধান যেখানে মাত্র এক। আগামী মঙ্গলবার বলোগানার বিরুদ্ধে লকডাউন পরবর্তী সিরি-এ’র প্রথম ম্যাচ খেলতে নামছে জুভেন্তাস। একইদিনে ভেরোনার বিরুদ্ধে নামছে ষষ্ঠস্থানে থাকা নাপোলি।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ