সুভীক কুন্ডু, কলকাতা ২৪x৭: এ যেন বিদ্রুপের জবাব দিলেন রোনাল্ডো!

খেলার জগতে প্রচলিত কথা রয়েছে৷ আর যাই কর চ্যাম্পিয়নের আঁতে ঘা দিও না!

স্পেনের মাটিতে অ্যাটলেটিকোর কাছে ০-২ এ হার জুভেন্তাসের৷ গ্যালারি থেকে মিক্স জোন, সর্বত্রই বিদ্রুপের মুখে পড়েছিলেন রোনাল্ডো৷ বিদ্রুপ এতটাই চটিয়ে দিয়েছিল, যে হাতের পাঁচ আঙুল দেখিয়ে পাঁচবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ের ইঙ্গিত দেখিয়ে সেদিন মিক্স জোন ছেড়েছিলেন৷ ছবিটা ২১ ফেব্রুয়ারির৷

কাট টু ১৩ মার্চ…তুরিনে দ্বিতীয়ার্ধ শুরুর এক মিনিট বাকি৷ মাঠে নামার আগে টানেলে শুরু রোনাল্ডোর ছটফটানি৷ তখনও দুই লেগ মিলিয়ে সমতায় ফিরতে চাই এক গোল৷ নিজে লাফাচ্ছেন, সঙ্গে দলের প্রত্যেকের কাছে গিয়ে কপালে কপাল ঠুকে মোটিভেশনের বুলি আওড়াচ্ছেন৷ শেষটায় রেফারিকেই সতীর্থ ভেবে ভুল করে গোল চাই বলে গর্জন! এক মুহূর্তে দেখলে মনে হতেই পারে খাঁচার ভিতর রক্তের স্বাদ পাওয়া ক্ষুদার্থ সিংহ৷ কোলাজগুলোই বলে দিচ্ছিল৷ বিদ্রুপ,অপমান, আঁতে ঘা আর চ্যাম্পিয়নের সেই পুরনো সমীকরণ৷

আরও পড়ুন- হ্যাটট্রিকে জুভেকে টিকিট পাইয়ে ‘অস্কার’ পাকা রোনাল্ডোর

তুরিনের দুই অর্ধ যদি ইন্টারভালের সেতুতে জুড়ে থাকা সিনেমার দুই পার্ট হয়৷ তবে রোনাল্ডোর হিট সিনেমার এন্ড স্ক্রোল দেখে বলতেই হবে ঢেঁকি স্বর্গে গেলেও ধান ভাঙে! রিয়াল মাদ্রিদের জার্সিতে পিছিয়ে থেকে এমন অনেক ম্যাচ একার কাঁধে বার করেছেন৷ এবারও করলেন, পার্থক্য শুধুই আলাদা জার্সি, আলাদা শহর আর ঐ… বয়সের হার্ডডিক্সে এক সংখ্যার সংযোজন৷ দিনের শেষে ক্রিশ্চিয়ানোর হ্যাটট্রিকে(২৭,৪৯,৮৬মি) দুই লেগ মিলিয়ে ৩-২ ব্যবধানে অ্যাটলেটিকো বধ করে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টারে জুভেন্তাস৷

যেন শেষদৃশ্যে নায়কের এক পাঞ্চেই ভিলেন কুপোকাত৷ হিট সিনেমার এমন ফর্মুলার মতোই ‘হেডস্যার’ রোনাল্ডোর জারিজুরিতেই বিপক্ষ ধপাস! দুটো মাথায় হারালেন আর একটা সহজ পেনাল্টিতে৷ বছর ৩৪ এর হিরোর হ্যাটট্রিকে হিরোইন জর্জিনাও ক্লাইম্যাক্সে জলে চোখ ভাসালেন৷ বড় অঘটন না হলে জুভে থেকেই কেরিয়ারে ইতি টানবেন৷ কেরিয়ারের শেষ অধ্যায়টা সবচেয়ে স্মরণীয় করে রাখতে চিত্রনাট্য লেখার কাজটা বোঝহয় এদিন থেকে শুরু করে দিলেন৷ শেষটায় সমালোচকদের মুখে তালা ঝুলিয়ে দেওয়া পারফরম্যান্সের পর ৩৪ এর চিরযুবক ক্রিশ্চিয়ানোর জন্য বলতেই হয়৷ জয় বাবা ‘রোনাল্ডোনাথ’৷