আসুনসিওন: জাল পাসপোর্ট কান্ডে একমাসেরও বেশি সময় প্যারাগুয়ের একটি সংশোধনাগারে বন্দি থাকার পর ছাড়া পেলেন ব্রাজিলের প্রাক্তন ফুটবল তারকা রোনাল্ডিনহো। তবে মুক্তি নয়, যেহেতু জাল পাসপোর্ট কান্ডে তাঁর উপর তদন্ত জারি রয়েছে তাই গৃহবন্দি হয়েই এখন থাকতে হবে ২০০২ বিশ্বজয়ী ব্রাজিল দলের সদস্যকে।

জেল থেকে বার করে আপাতত প্যারাগুয়ের রাজধানী শহর আসুনসিওর একই লাক্সারি হোটেলে রাখা হয়েছে প্রাক্তন তারকা ফুটবলারকে। উল্লেখ্য, গত ৬ মার্চ জাল পাসপোর্ট নিয়ে প্রবেশের সময় প্যারাগুয়ের একটি বিমানবন্দরে গ্রেফতার করা হয় রোনাল্ডিনহোকে। সঙ্গে ছিলেন তাঁর ভাই রবার্তো দি আসিস। তাঁকেও গ্রফতার করা হয়েছিল ঘটনায়। যদিও পরবর্তীতে রোনাল্ডিনহোর জাল পাসপোর্ট কান্ডে তদন্ত অগ্রগতি হয়েছে। তাই বিচারকের নির্দেশেই রোনাল্ডিনহোকে আপাতত জেলের বাইরে গৃহবন্দি রাখা হয়েছে।

যদিও রোনাল্ডিনহো শুনানিতে জানান, তিনি একেবারেই প্রত্যক্ষভাবে ঘটনার সঙ্গে জড়িত নন। তিনি এই ঘটনায় ফেঁসে গিয়েছেন বলে জানান প্রাক্তন ব্রাজিল তারকা। আপাতত ঘটনার সঙ্গে যুক্ত ১৪ জনের বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে। ঘটনায় দোষী প্রমাণিত হলে রোনাল্ডিনহোর ৫ বছর অবধি হাজতবাস হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

তবে গ্রেফতারের পর জেলবন্দী থাকাকালীন খোশমেজাজেই পাওয়া গিয়েছিল প্রাক্তন বার্সা, এসি মিলান, পিএসজি তারকাকে। সম্প্রতি সংশোধনাগারে রোনাল্ডিনহোর ফুটভলি খেলার একটি ভিডিও প্রকাশ পায় ইন্টারনেটে। যেখানে দু’বারের ব্যালন ডি’অর জয়ীকে দেখা গিয়েছে দিব্যি ফুটভলিতে মজে থাকতে। পার্টনারের সঙ্গে রোনাল্ডিনহোর দুর্দান্ত বোঝাপড়াও স্পষ্ট সেই ভিডিওয়। দেড় মিনিটের ছোট্ট ভিডিওতে ফুটভলিতেও রোনাল্ডিনহোর বেশ কিছু স্কিলও চোখে পড়ে।

এরও দিনকয়েক আগে জেলবন্দিদের সঙ্গে একটি ফাইভ-ও-সাইড ফুটবল ম্যাচও খেলেছিলেন ২০০২ ব্রাজিলের বিশ্বজয়ী দলের সদস্য। যেখানে সতীর্থদের দিয়ে গোল করানোই ছিল রোনাল্ডিনহোর চ্যালঞ্জ। নিজে ৫টি গোল তো করেনই, সতীর্থদের দিয়ে ওই ম্যাচে ৬টি গোল করিয়েছিলেন রোনাল্ডিনহো। তাঁর দল জিতেছিল ১১-২ গোলে। সেই ম্যাচের ছবিও ভাইরাল হয়েছিল ইন্টারনেটে।