মুম্বই: মেয়েকে মিস করছিলেন, দেশে ফিরেই তাই মেয়ের সঙ্গে ছবি তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট রোহিত শর্মার৷ ছোট্ট সামাইরার সঙ্গে ছবি পোস্টের পর মুহূর্তেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড়৷ বাবার কোলে শুয়ে গুলু গুলু চোখে মিষ্টি সামাইরার মিষ্টি হাসি এখন দিনের সেরা স্পোর্টস ভাইরাল৷

ভিডিও ভাইরাল হতেই ছোট্ট সামাইরাকে নিয়ে নেটিজেনের সীমাহীন কৌতুহল৷ বেবি শর্মাকে ঠিক কার মতো দেখতে হয়েছে, সেই নিয়েই জোর চর্চা চলেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়৷ বেবি শর্মার মিষ্টি হাসির মিষ্টি ভিডিও দেখে নেটিজেনের অর্ধেকের বেশি ভোট গিয়ে পড়েছে রোহিতের ঝুলিতে৷

নেটিজেনের সকলের কমবেশি ভোট বলছে হুবহু রোহিতের মুখ পেয়েছে ছোট্ট সামাইরা৷ বেবি শর্মার মুখ কার মতো, সেই ভোটে অনেকটাই ব্যকফুটে রোহিত পত্নী রীতিকা৷ যারা এখনও ছবি দেখে যারা উত্তরটা ঠিক করতে পারলেন না, তাঁদের জন্য রইল ছবি-ভিডিও৷

এর আগে কন্যা সন্তানের জন্মের পর অজি সফর থেকে দেশে ফিরে এসে মেয়ের সঙ্গে প্রথম ছবি পোস্ট করেছিলেন৷ সেই ছবিতে অবশ্য মা রীতিকার সঙ্গে ছোট্ট সামাইরার ছবি পোস্ট করেছিলেন রোহিত৷ ছবিতে রীতিকার আঙুল ধরে ছিল ছোট্ট সামাইরা৷ মুখ প্রকাশ্যে আসেনি৷

পরের ছবিতেই এরপর বেবি শর্মাকে কোলে নিয়ে ছবি পোস্ট করেছিলেন বিরাটের ওয়ান ডে ডেপুটি৷ সেই ছবির পরই সোশ্যাল মিডিয়ায় হিটম্যানের বিরুদ্ধে অভিমানের শুরে অনেকেই লিখেছিলেন, মেয়ের মুখ প্রকাশে রোহিতের লুকোচুরিতে ধৈর্যের বাঁধ ভাঙছে তাঁদের! ভক্তদের এই আবদারের পর আর লুকোচুরি নয়৷ এবার মেয়ের মুখ প্রথমবারের জন্য প্রকাশ্যে আনলেন হিটম্যান৷ আর তাতেই এখন নেশনস ওয়ান্স টু নো… কার মতো দেখতে হয়েছে বেবি শর্মাকে?

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।