মাদ্রিদ: চোটের কারণে চলতি নিউজিল্যান্ড সফরে ওয়ান-ডে এবং টেস্ট সিরিজে খেলা হয়নি তাঁর। আপাতত চোট সারিয়ে ঘরের মাঠে আসন্ন দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে কামব্যাক করতে মরিয়া তিনি। তবে চোটের কারণে বাইশ গজ থেকে সাময়িক ছুটি পাওয়া জাতীয় দলের গুরুত্বপূর্ণ ওপেনার কেবল রিহ্যাব প্রক্রিয়ার মধ্যে নিজেকে আটকে রাখতে রাজি নন। তাই বছরের প্রথম এল ক্লাসিকো দেখতে মাদ্রিদ পৌঁছে গেলেন এদেশে লা-লিগার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর।

গত ডিসেম্বরে লা-লিগা কর্তৃপক্ষ আনুষ্ঠানিকভাবে রোহিতকে ভারতবর্ষে স্পেনের প্রিমিয়র ডিভিশন লিগের অ্যাম্বাসেডর ঘোষণা করে। তখনই স্টেডিয়ামে উপস্থিত থেকে বিশ্ব ফুটবলের সবচেয়ে হাইভোল্টেজ দ্বৈরথ দেখার ইচ্ছেপ্রকাশ করেছিলেন সংক্ষিপ্ত ফর্ম্যাটে বিরাট কোহলির ডেপুটি। অবশেষে রবিবাসরীয় স্যান্টিয়াগো বার্নাব্যুতে প্রথমবার গ্যালারি থেকে রিয়াল মাদ্রিদ-বার্সেলোনার লড়াই দেখার স্বাদ চেটেপুটে নেবেন ‘হিটম্যান’।

শনিবারই মাদ্রিদ পৌঁছে একটি টুইট করেন ওয়ান-ডে ক্রিকেটে ৩টি দ্বিশতরানের মালিক। সেখানে নিজের একটি ছবি পোস্ট করে রোহিত লেখেন, ‘ছবির মতো সুন্দর মাদ্রিদে পৌঁছে দারুণ লাগছে। আগামীকাল এল ক্লাসিকো দেখার জন্য অপেক্ষার তর সইছে না।’

গত ডিসেম্বরে ভারতবর্ষে লা-লিগার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হয়ে এল-ক্লাসিকো প্রসঙ্গে রোহিত জানিয়েছিলেন, ‘টেলিভিশনে এল-ক্লাসিকো অসংখ্য বার দেখেছি। তবে স্টেডিয়ামে বসে বিস্বের সেরা দু’টি ক্লাবের লড়াই দেখার অনুভূতিটা কল্পনাও করতে পারি না। তবে লা-লিগা বিশ্বের প্রথম সারির লিগগুলোর মধ্যে একটি। লিগে ফুটবলারদের দক্ষতা যেমন, ঠিক তেমনই ফুটবলের প্রতি তাদের প্যাশন। তাই টেলিভিশনে দেখলেও মনে হয় বুঝি স্টেডিয়ামে রয়েছি।’

অন্যদিকে করোনা আতঙ্ক ঝেড়ে ফেলে নির্ধারিত সময়েই অনুষ্ঠিত হতে চলেছে বছরের প্রথম মরশুমের দ্বিতীয় এল-ক্লাসিকো। ভারতীয় সময় সোমবার রাত ১টা ৩০ মিনিটে অনুষ্ঠিত হবে রিয়াল-বার্সা দ্বৈরথ। উল্লেখ্য, চ্যাম্পিয়নশিপের দৌড়ে এই এল-ক্লাসিকো ভীষণই গুরুত্বপূর্ণ। ঘরের মাঠে মেগা ম্যাচ জিতে লিগ টেবিলে শীর্ষস্থান পুনরুদ্ধারের সুযোগ জিদানের দলের কাছে। অন্যদিকে কিকে সেতিয়ানকে এল-ক্লাসিকো অভিষেকে জয় এনে দিয়ে শীর্ষস্থানে অবস্থান মজবুত করতে মরিয়া মেসির বার্সেলোনা।