মুম্বই: একজন অল-টাইম গ্রেট সচিন রমেশ তেন্ডুলকর। আরেকজন বর্তমান সময়ে সীমিত ওভারের ক্রিকেটে সেরা ওপেনার রোহিত গুরুনাথ শর্মা। ৪৯টি শতরান সহ প্রথমজনের ওয়ান ডে তে মোট রানসংখ্যা ১৮,৪২৬। দ্বিতীয়জনের ঝুলিতে রয়েছে ৩টি ওয়ান-ডে দ্বিশতরান। কিন্তু হাজার হলেও ক্রিকেটীয় পরিসংখ্যান তুলে ধরে রোহিতের সঙ্গে সচিনের তুলনাতে যাওয়ার ভুল করবেন না কেউই। সেই কাজটা করেই এবার বিতর্কে জড়ালেন প্রাক্তন কিউয়ি ক্রিকেটার সাইমন ডুল।

ওয়ান-ডে ফর্ম্যাটে সচিন তেন্ডুলকরের তুলনায় রোহিত শর্মাকে ওপেনার হিসেবে এগিয়ে রাখলেন ডুল। তাঁর এই মন্তব্যের স্বপক্ষে একাধিক যুক্তিও খাড়া করেছেন কিউয়ি প্রাক্তনী। প্রাক্তন কিউই ক্রিকেটার বলেছেন, ‘পরিসংখ্যানের দিকে তাকালেই বিষয়টা স্পষ্ট হয়ে যাবে। এক দিনের ক্রিকেটে রোহিতের গড় যেখানে ৪৯, স্ট্রাইক রেট ৮৮। সচিনের গড় সেখানে ৪৪, স্ট্রাইক রেট ৮৬। নম্বরের দিক থেকে রোহিতের পরিসংখ্যান অসাধারণ।’

এখানেই শেষ নয়। ডুল আইসিসি-র ‘ক্রিকেট ইনসাইড আউট’ অনুষ্ঠানে আরও বলেছেন, ‘৬০, ৭০, ৮০ রানের পর স্ট্রাইক রেট আরও বাড়তে থাকে রোহিতের। এমনকি নব্বইয়ের ঘরে গিয়েও ও আটকায় না। রোহিত একজন বিস্ময়কর ক্রিকেট প্রতিভা।’

যদিও ডুলের এই তুলনা সহজে গ্রহণ করতে পারেননি ক্রিকেট অনুরাগীরা। স্বাভাবিকভাবেই ছড়িয়েছে বিতর্ক। নেটাগরিকদের মতে একসঙ্গে কিছু সময়ের জন্য দুই মুম্বইকার একসঙ্গে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেললেও সচিন-রোহিত দুই ভিন্ন প্রজন্মের ক্রিকেটার। নেটিজেনদের মতে কেরিয়ারে অধিকাংশ সময় ব্যাটিংয়ে পাওয়ার প্লে’র সহায়তা পাননি মাস্টার-ব্লাস্টার। তখনকার দিনে ক্রিকেটে এত দ্রুত হারে রান উঠত না। উইকেট বাঁচিয়ে খেলাই ছিল প্রধান লক্ষ্য।

কিন্তু দিন বদলানোর সঙ্গে সঙ্গে বদলেছে ক্রিকেটের ধরনও। আধুনিক যুগের ক্রিকেট মূলত ব্যাটসম্যানদের পক্ষেই কথা বলে। আধুনিক ক্রিকেটে বিনোদনের মশলা অনেক বেশি। তাই রোহিতকে যথাযথ সম্মান দিয়েও নেটাগরিকরা বলছেন দু’জনের মধ্যে তুলনা অহেতুক।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প