রাঁচি: সংক্ষিপ্ত ফর্ম্যাটে বিশ্বের প্রথসারির ব্যাটসম্যানদের মধ্যে নিজেকে তালিকাভুক্ত করেছেন অনেক আগেই। কিন্তু পাঁচদিনের ক্রিকেটে তাঁর পারফরম্যান্স চলতি সিরিজের আগে মোটেই তাঁর নামের প্রতি সুবিচার করছিল না। অগত্যা ওপেনার হিসেবেই দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে চ্যালেঞ্জটা গ্রহণ করলেন তিনি। প্রত্যুত্তরে জবাবটা যেভাবে দিলেন তাতে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে চলতি সিরিজে যেন টেস্ট ক্রিকেটে নবজন্ম হল রোহিত গুরুনাথ শর্মার।

ভাইজ্যাকে প্রথম টেস্টে জোড়া শতরানের পর পুণে টেস্টে ব্যর্থ হয়েছিলেন ঠিকই। কিন্তু মি: ধারাবাহিক রোহিত ফের নিজের ক্লাস চেনালেন রাঁচি টেস্টে। রাবাদা-নর্তজের বিষাক্ত ইনস্যুইংগার গুলো শনিবার যখন সমস্যায় ফেলছিল ময়াঙ্ক-পূজারাদের। ঠিক তখন দলের বিপদসংকুল পরিস্থিতিতে চোয়াল চেপে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছিলেন হিটম্যান। ওপেনার হিসেবে দিয়েছিলেন অগাধ দায়িত্ববোধের পরিচয়। আর ক্রিজে একবার থিতু হয়ে যেতেই চতুর্থ উইকেটে রাহানেকে নিয়ে কাটিয়ে দিয়েছিলেন দিনের বাকিটা সময়। ৩৯ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে ধুঁকতে থাকা দলকে দিনের শেষে দাঁড় করিয়ে দিয়েছিলেন অ্যাডভান্টেজ পরিস্থিতিতে।

পাশাপাশি টেস্ট ক্রিকেটে ষষ্ঠ শতরান করে শনিবারই কিংবদন্তি গাভাস্করকে ছুঁয়ে ফেলেছিলেন ‘হিটম্যান’। রবিবাসরীয় রাঁচিতে শনিবারের অপরাজিত শতরানকে কেরিয়ারের অভিষেক ডাবল টনে কনভার্ট করলেন মুম্বইকার ব্যাটসম্যান।

একটি সিরিজে সর্বাধিক তিনটি শতরান করে লিটল মাস্টারকে স্পর্শ করার পাশাপাশি একটি সিরিজে সর্বাধিক ছক্কা হাঁকানোর নিরিখে গতকাল শিমরন হেটমেয়ারকে টপকে গিয়েছিলেন রোহিত। রোহিতের অপরাজিত ১১৭ ও রাহানের অপরাজিত ৮৩ রানে ভর করে ২২৪ রানে প্রথমদিন শেষ করেছিল ভারত। দ্বিতীয়দিন অপরাজিত শতরানকে দ্বিশতরানে কনভার্ট করলেন ভারতীয় ওপেনার। মধ্যাহ্নভোজের বিরতিতে অপরাজিত ছিলেন ১৯৯ রানে। বিরতির ঠিক পরেই টেস্ট কেরিয়ারের প্রথম দ্বিশতরানটি পূর্ন করেন ‘হিটম্যান’।

উল্টোদিকে শতরান পূর্ণ করে ১১৫ রানে প্যাভিলিয়নে ফেরেন কোহলির ডেপুটি আজিঙ্কা রাহানে। চতুর্থ উইকেটে এই দুই ব্যাটসম্যানের ২৬৭ রানের নির্ভরযোগ্য পার্টনারশিপে তৃতীয় টেস্টেও ফের বড় রানের পাহাড়ে চড়ার ইঙ্গিত ভারতীয় দলের। দ্বিতীয়দিন প্রথম সেশনে রাহানের উইকেট হারিয়ে ভারতের রান ৩৫৭। ১৯২ বলে রাহানের ১১৫ রানের ইনিংসে ছিল ১৭টি চার ও ১টি ছয়।

লাঞ্চের পর তৃতীয় ওভারে লুঙ্গি এনগিদিকে ছক্কা হাঁকিয়ে অভিষেক দ্বিশতরান পূর্ণ করেন রোহিত। উল্লেখ্য, শনিবার ছক্কা হাঁকিয়েই সেঞ্চুরি এসেছিল হিটম্যানের। যদিও দ্বিশতরান পূর্ণ করার পর বিশেষ দীর্ঘায়িত হয়নি রোহিতের ইনিংস। দ্বিশতরান পূর্ণ করার পরের ওভারেই ২১২ রানে (২৮টি চার, ৬টি ছক্কা) রাবাদার বলে এনগিদির হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তিনি। প্রতিবেদন লেখা অবধি ভারতের রান ৫ উইকেটে ৩৭১। ক্রিজে জাদেজার সঙ্গী ঋদ্ধিমান।