মাউন্ট মাউন্টগানুই: কিউয়িদের মাটিতে রোহিতের সামগ্রিক খারাপ পরিসংখ্যান ম্যাচের আগে চিন্তায় রেখেছিল ভারতীয় থিঙ্ক-ট্যাঙ্ককে। কিন্তু বে ওভালে দ্বিতীয় ওয়ান ডে’তে স্বমহিমায় পাওয়া গেল হিটম্যানকে। শতরান থেকে মাত্র ১৩ রান দূরে থামলেও ধাওয়ানের সঙ্গে ওপেনিংয়ে তাঁর ১৫৪ রানের পার্টনারশিপ দ্বিতীয় ওয়ান ডে’তে ভারতকে এগিয়ে নিয়ে গেল বড় রানের লক্ষ্যে।

অন্যদিকে প্রথম ম্যাচে দুরন্ত অর্ধশতরানের পর দ্বিতীয় ওয়ান ডে-তেও অর্ধশতরান করলেন আরেক ওপেনার শিখর ধাওয়ান। সবমিলিয়ে রোহিত-ধাওয়ানের দেড় শতরানের দুরন্ত পার্টনারশিপে ভর করে মাউন্ট মাউনগানুইয়ে জাঁকিয়ে বসল ভারত। অর্ধশতরান পূর্ণ করার পর ২৫.২ ওভারে ব্যক্তিগত ৬৬ রানে এদিন প্যাভিলিয়নে ফেরেন ধাওয়ান। তবে শতরানের লক্ষ্যে ভালই এগোচ্ছিলেন হিটম্যান। কিন্তু বে ওভালের দর্শকেরা যখন ধরে নিয়েছেন রোহিতের ব্যাটে ২৩ তম শতরান শুধু সময়ের অপেক্ষা, ঠিক তখনই লকি ফার্গুসনের ডেলিভারিতে ঠকে যান হিটম্যান।

৩০ ওভারের মাথায় ব্যক্তিগত ৮৭ রানে গ্র্যান্ডহোমের হাতে তালুবন্দি হয়ে ফেরেন তিনি। এর আগে দ্বিতীয় ওয়ান ডে’তে এদিন টসভাগ্য সহায় ছিল ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলির। টসে জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর কিউয়ি বোলারদের সংহারের পথ বেছে নেন ‘হিটম্যান’ রোহিত ও ‘গব্বর’ ধাওয়ান। বে ওভালের ছোট বাউন্ডারিতে দুই ওপেনারের সাবলীল ব্যাটিংয়ে অসহায় দেখাচ্ছিল কিউয়ি বোলারদের। ৬২ বলে রোহিত অর্ধশতরান সম্পূর্ণ করতেই ১৮ তম ওভারে ১০০ রানের গন্ডি ছুঁয়ে যায় ভারত।

এরপর রোহিতের পথ ধরে ৫৩ বলে হাফসেঞ্চুরি সম্পন্ন করেন ধাওয়ান। যদিও অর্ধশতরান পূর্ণ করার পর দীর্ঘস্থায়ী হয়নি গব্বরের ব্যাটিং। ৬৬ রানে অফসাইডের খানিকটা বাইরের বল তাড়া করতে গিয়ে উইকেটের পিছনে ল্যাথামের তালুবন্দি হন তিনি। তবে অধিনায়ককে সঙ্গে নিয়ে শতরানের দিকে ভালই এগোচ্ছিলেন রোহিত। কিন্তু ৮৭ রানে থেমে যায় কোহলির ডেপুটির দুরন্ত ইনিংস।

তবে দুই ওপেনারের উইকেট খুঁইয়েও সুবিধাজনক জায়গাতেই রয়েছে মেন ইন ব্লু। প্রতিবেদন লেখা অবধি ভারতের রান ৩৪ ওভারে ১৯৬। ক্রিজে ২২ রানে অপরাজিত অধিনায়ক কোহলি। ১৩ রানে ব্যাট করছেন চার নম্বরে নামা অম্বাতি রায়ডু।