বাসেল: শেষ গ্র্যান্ড স্ল্যামটি এসেছিল দু’বছর আগে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে। কেরিয়ারের ২১তম গ্র্যান্ড স্ল্যামের লক্ষ্যে ভাগ্যের পাশাপাশি কিংবদন্তি রজার ফেডেরারকে লড়তে হচ্ছে চোটের সঙ্গেও। বছরের প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যাম অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের মাঝেই ভোগাচ্ছিল ডান হাঁটুর ব্যথা। তাই আর দেরি করলেন না। বুধবারই হাঁটুর অস্ত্রোপচার করিয়ে নিলেন সুইস টেনিস মায়েস্ত্রো রজার ফেডেরার।

আর ঠিক সে কারণেই আগামী মে মাসে বছরের দ্বিতীয় গ্র্যান্ড স্ল্যাম ফরাসি ওপেনে নামতে পারছেন না তিনি। চোটের কারণে গত পাঁচ বছরে এই নিয়ে চতুর্থবার ক্লে-কোর্ট গ্র্যান্ড স্ল্যাম থেকে নাম প্রত্যাহার করতে চলেছেন ২০টি সিঙ্গলস গ্র্যান্ড স্ল্যামের মালিক। শুধু ফরাসি ওপেনই নয়, হাঁটুর অস্ত্রোপচারের কারণে বেশ কয়েকটি এটিপি টুর্নামেন্টেও কোর্টের বাইরে থাকতে হবে বছর আটত্রিশের ফেডেরারকে। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য দুবাই, ইন্ডিয়ান ওয়েলস, বোগোটা এবং মিয়ামি।

টুইটারে এদিন অনুরাগীদের প্রতি এক লিখিত বার্তায় ফরাসি ওপেন সহ আসন্ন বেশ কয়েকটি টুর্নামেন্টে না খেলার বিষয় সম্পর্কে জ্ঞাত করলেন রজার। মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারে বৃহস্পতিবার ফেডেরার লেখেন, ‘বেশ কিছু সময় ধরে ডান হাঁটুটা ভোগাচ্ছিল। প্রথমে মনে করেছিলাম বুঝি সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ঠিক হয়ে যাবে। কিন্তু বেশ কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও আলোচনার পর গতকাল ডান হাঁটুতে অস্ত্রোপচার হয়েছে। চিকিৎসকেরা অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্তকে একদম সঠিক বলে জানিয়েছেন এবং তারা আত্মবিশ্বাসী আমার দ্রুত সুস্থতার বিষয়ে।’

ফলাফল হিসেবে দুবাই, ইন্ডিয়ান ওয়েলস, বোগোটা, মিয়ামি এবং ফরাসি ওপেনে র‍্যাকেট হাতে নামতে না পারার বিষয়টি জানান ফেডেরার। একইসঙ্গে অনুরাগীদের থেকে পূর্ণ সমর্থন চেয়ে কিংবদন্তি জানান খুব শীঘ্র ঘাসের কোর্টে তোমাদের সঙ্গে দেখা হবে। অর্থাৎ, হাঁটুর চোট সারিয়ে নিজের প্রিয় গ্র্যান্ড স্ল্যাম উইম্বলডনে মাঠে নামার বার্তা দেন সুইশ টেনিস মায়েস্ত্রো।

চোটের কারণে ২০১৭ এবং ২০১৮ মরশুমে ক্লে-কোর্ট থেকে নিজেকে পুরোপুরি সরিয়ে নিয়েছিলেন ফেডেরার। গতবছর খেললেও ফের চোটের কারণে চলতি বছর রোলা গাঁরোয় নামা হচ্ছে না রজারের। উল্লেখ্য, চলতি বছর প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যাম অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নিয়েছিলেন তিনি। শেষ চারের লড়াইয়ে চ্যাম্পিয়ন নোভাক জকোভিচের কাছে স্ট্রেট সেটে হেরে বসেন ফেডেক্স।