ব্রিটেন;  আগামী এক দশকের মধ্যে রাস্তায় টহল দেবে সায়েন্স ফিকশন চলচ্চিত্রের ‘রোবোকপ’ জাতীয় পুলিশ। যার জেরে চাকরি হারানোর ভয় থাকবে সেনা, শ্রমিক এবং নভোচারীদের।
যন্ত্রদানব বা রোবট আটপৌরে জীবনের কাজকর্ম হাতে তুলে নিলে পরিস্থিতি কী দাঁড়াবে সম্প্রতি ব্রিটেনে তার উপর একটি সমীক্ষা চালানো হয়। সমীক্ষায় চাকরি হারানোর আশঙ্কার কথা উঠে এসেছে। ব্রিটেনের ২০০০ মানুষের ওপর এই সমীক্ষা চালানো হয়েছে। সমীক্ষায় গ্রহণকারীদের এক তৃতীয়াংশের বেশি মানুষই যন্ত্রদানব বা রোবটের হাতে চাকরি হারানোর আশঙ্কার কথা তুলে ধরেছেন।
সমীক্ষায় ৪৫ শতাংশ মানুষ মনে করেন, ২০২৫ সালের মধ্যে সেনাদের জায়গায় স্থলাভিষিক্ত হবে যন্ত্রদানব বা রোবট। একই ভাবে ৩৩ শতাংশ মানুষ মনে করেন কারখানা শ্রমিকদের স্থান দখল করবে রোবট। ৩৩ শতাংশ মনে করেন কর্মক্ষেত্রে যন্ত্রদানব নিয়োগের কারণে একই পরিণতি ভোগ করবেন নভোচারীরাও। একই সঙ্গে চাকরি যেতে পারে হোটেলের কাজ করে খেটে খাওয়া প্রচুর মানুষের।
অন্যদিকে, প্রযুক্তির বিকাশ অতিদ্রুত ঘটছে এবং পরিচিত জীবন ব্যবস্থা আমূল পরিবর্তনের মুখে পড়েছে বলে অনেকেই মনে করছেন। আর অতি বুদ্ধিমান যন্ত্রদানব তৈরির পরিণাম শেষ পর্যন্ত মানুষের জন্য শুভ নাও হতে পারে বলে কেউ কেউ আশঙ্কা ব্যক্ত করেছেন। তারা বলেছেন, ভাগ্য ভাল থাকলে মানুষের তুলনায় অতি বুদ্ধিমান যন্ত্রদানব বা রোবট মানব জাতির আনুগত্য মেনে নিতে পারে। আর তা না হলে সমূহ বিপদ।