স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: জল্পনার অবসান করে তবে কী গেরুয়া বসনই গায়ে চড়াতে চলেছেন টলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় নায়িকা ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত?

সূত্রের খবর, শুক্রবার কলকাতার মহাজাতি সদনে হওয়া রাজ্য বিজেপি-র একটি অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে পারেন অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত৷ সেই অনুষ্ঠান থেকেই পাকাপাকি ভাবে বিজেপিতে যোগদান করতে পারেন অভিনেত্রী৷

রোজভ্যালি কান্ড সামনে আসার পর থেকেই রাজনৈতিক মহলে গুঞ্জন ছিল বিজেপি-র সঙ্গে সু-সম্পর্ক বজায় রাখছেন ঋতুপর্ণা৷ তবে কোন দিনও প্রকাশ্যে সেকথা স্বীকার করেননি বিজেপি ও অভিনেত্রী কেউ ই৷ এমনকি কিছুদিন আগে কলকাতার মহাজাতি সদনে একটি অনুষ্ঠানে হাজির হওয়ার কথা ছিল ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত-র৷ তবে শেষ মুহূর্তে অনুষ্ঠান বাতিল হয়ে যাওয়ায় হাজির থাকা হয়নি তাঁর৷যদিও সেই বিষয়ে বিজেপির দাবি, ‘ওই অনুষ্ঠান বাতিল হয়ে যায়নি। স্থগিত রাখা হয়েছিল।’ শোনা যাচ্ছে টালিগঞ্জের শিল্পীদের নিয়ে সংগঠন গড়তে চলেছে বিজেপির বঙ্গ ব্রিগেড। সেই সংগঠনের দায়িত্ব দেওয়া হতে পারে ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তকে।

রাজনীতির ময়দানে চলচ্চিত্র তারকাদের আগমন নতুন কিছু নয়। তবে তৃণমুল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দৌলতে এর প্রভাব অনেকটাই বেড়েছে বাংলায়। তারকা ব্যক্তিদের অনেকে ঘাস ফুল প্রতীকে জিতে সাংসদ হয়েছেন। বিশেষজ্ঞদের মতে, এর মাধ্যমে ভোটারদের আকৃষ্ট করা যায়। একইসঙ্গে দলের অভ্যন্তরীণ কোন্দল মকাবিলাও করা যায় খুব সহজে। রাজ্য বিজেপির মহিলা মোর্চার নেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায় আগে তৃণমূল কংগ্রেস এবং নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছের লোক বলেই পরিচিত ছিলেন। তিনি পরে দল বদল করে গেরুয়া শিবির নাম লেখান। গত ২০১৬ বিধানসভা নির্বাচনে প্রার্থীও ছিলেন তিনি।

তবে শুক্রবার মহাজাতি সদনের অনুষ্ঠানেও ঋতুপর্ণা থাকবেন কি না৷ সেই বিষয়ে নির্দিষ্ট করে কিছু বলেননি বিজেপির রাজ্য নেতারা৷ এখন সময়ই বলবে অভিনেত্রীর বিজেপি যোগ শুধুই জল্পনা না কি সত্যি৷