নয়াদিল্লি: নিতান্তই পর্যবেক্ষণ। আর সেই পর্যবেক্ষণ থেকে অনুরাগীদের উদ্দেশ্যে প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়ে কারণ জানতে চাইলেন বর্ষীয়ান অভিনেতা ঋষি কাপুর। এমনিতেই সোশ্যাল মিডিয়ার একজন সক্রিয় ইউজার হিসেবে ভিন্ন সময় তাঁর মন্তব্যে শোরগোল হয়েছে দেশজুড়ে। এবার বিশ্বকাপের জন্য ঘোষিত ভারতীয় দলে ১৫ জন ক্রিকেটারের মধ্যে অধিকাংশেরই কেন গালভর্তি দাড়ি, প্রশ্ন তুললেন কিংবদন্তি অভিনেতা।

চিকিৎসার কারণে এই মুহূর্তে মার্কিন মুলুকে রয়েছেন বর্ষীয়ান কিংবদন্তি অভিনেতা। সেখান থেকেই বিশ্বকাপের জন্য ঘোষিত ভারতীয় দলের দিকে নজর ছিল তাঁর। দল ঘোষণার পর ভারতের ১৫ সদস্যের একটি পেপার কাটিং সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেন ঋষি কাপুর। প্রশ্ন তোলেন, ‘আমাদের ক্রিকেটারদের মধ্যে এমন দাড়ি রাখার প্রবণতা কেন?’

আরও পড়ুন: ম্যাচ জিতে ভাংড়া নাচলেন অশ্বিন, ভাইরাল ভিডিও

এপ্রসঙ্গে হিব্রু বাইবেল মতে প্রাচীন ইজরায়েলের শেষ বিচারক স্যামসনের তুলনা টেনেছেন অভিনেতা। তুলনা টেনে তিনি ফের প্রশ্ন করেন, ‘আমাদের ক্রিকেটাররা কি স্যামসনের অনুগামী (স্যামসনের সমস্ত শক্তির উৎস ছিল তাঁর চুল)।’ এরপর কোহলি এবং সেনাপতিদের উদ্দেশ্যে বার্তা দিয়ে তিনি জানান, ক্রিকেটাররা দাড়ি-গোঁফ ছাড়াও তো স্মার্ট লাগতে পারেন। সবশেষে বিষটিকে নেহাতই পর্যবেক্ষণ বলে ব্যাখ্যা করেন বর্ষীয়ান অভিনেতা।

আরও পড়ুন: বিশ্বকাপে পন্তকে না-রাখার ব্যখ্যা দিলেন নির্বাচক প্রধান

ধোনি-ভুবি বাদ দিলে বিশ্বকাপের জন্য ভারতীয় দলে বাকি প্রত্যেক ক্রিকেটারদের রয়েছে গালভর্তি কমবেশি দাড়ি। নজরে পড়লেও বিষয়টিকে এযাবৎ তেমন কেউ ভ্রূক্ষেপ করেননি কেউই। কিন্তু অভিনেতা প্রশ্ন তোলার পর মন্তব্য ভেসে আসতে থাকে দেদার। সেখানে মজার ছলে কেউ-কেউ বলেন ‘জিলেট’ দলের স্পনসর না হওয়ায় ক্রিকেটারদের এমন হাল। আবার অনেকে অভিনেতাকে শুধরে দিয়ে বলেন স্যামসন নন, বরং দলের ক্রিকেটাররা দলনায়ক কোহলিকে অনুসরণ করছেন।