মুম্বই: টানা ২১ দিন বন্ধ গোটা দেশ। ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত পুরো দেশ লকডাউন রাখার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। মাত্র কিছু প্রয়োজনীয় খাবারের দোকান খোলা থাকছে। আর এর মধ্যেই একটি আর্জি রেখে নেটিজেনদের তীব্র সমালোচনার মুখে পড়লেন অভিনেতা ঋষি কাপুর।

টুইটারে একটি পোস্ট করে মদের দোকান খোলা রাখার আর্জি জানিয়েছেন বর্ষীয়ান অভিনেতা। আর এই নিয়েই শুরু হয়েছে বিতর্ক। লকডাউনের জন্য দেশের মদের দোকানগুলিও বন্ধ রয়েছে। তাতেই বিরক্ত ঋষি কাপুর। তাই তিনি টুইটারে লিখেছেন, ভাবুন। সন্ধে বেলা ন্তত লাইসেন্স প্রাপ্ত মদের দোকানগুলি খোলার অনুমতি দেওয়া উচিত। আমায় ভুল বুঝবেন না। মানুষ কিন্তু অবসাদ ও অনিশ্চয়তাকে সঙ্গে নিয়ে দিন কাটাচ্ছে বাড়িতে। পুলিশ, চিকিৎসক, সাধারণ নাগরিক সবারই একটু শান্তির দরকার। এমনিতও ব্ল্যাকে তো বিক্রিই হচ্ছে।

আর একটি টুইটে ঋষি কাপুর লেখেন, রাজ্য সরকারেরও তো কিছু শুল্ক পাবে এর থেকে। টাকারও তো দরকার রয়েছে। এই পরাজয় যেন অবসাদের কারণ না হয়ে ওঠে। লোকে তো সেই ব্ল্যাকে খাচ্ছেই। সেটা আইনসম্মত করে দিলেই হয়। যদিও এটা আমার মত।

চিকিৎসকরা বার বার বলছেন এই সময়ে ধূমপান ও মদ্যপান থেকে বিরত থাকতে। নিয়মিত মদ্যপায়ী ও ধূমপায়ীদের জন্য করোনা ভাইরাস আরও সাংঘাতিক হতে পারে বলে জানিয়েছেন তাঁরা। আর সেই সময়েই ঋষি কাপুরের এইরকম মন্তব্যে নেটিজেনরা খুবই বিরক্তি প্রকাশ করেছেন।

প্রসঙ্গত রবিবার মন কি বাত অনুষ্ঠানে ফের জাতির উদ্দেশে বক্তব্য রেখেছেন মোদী। তিনি বলেছেন সামাজিক দূরত্ব বাড়ুক। কিন্তু পরিচিতের সঙ্গে মানসিক দূরত্ব নয়।

গত মঙ্গলবার দেশ জুড়ে লক ডাউনের ঘোষণা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। দেশবাসীকে করোনা ভাইরাসের হাত থেকে বাঁচাতে এই পন্থা অবলম্বন করেছেন তিনি। সারা বিশ্বে রীতিমত মহামারীর আকার ধারন করেছে এই ভাইরাস। তারই সঙ্গে এই দেশেও ক্রমে বেড়ে চলেছে সংক্রমণের হার।