মুম্বই: সদ্যসমাপ্ত দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে প্রত্যাবর্তন ঘটেছে ঋদ্ধিমান সাহা’র৷ ভারতের এক নম্বর উইকেটকিপার চোটের জন্য বেশ কিছুদিন মাঠে বাইরে থাকায় ঋদ্ধিমানের জায়গা জাতীয় দলে সুযোগটা কাজে লাগায় ঋষভ পন্ত৷ কিন্তু ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে ঋষভ খেললেও প্রোটিয়াদের বিরুদ্ধে ঋদ্ধিমানকে একাদশে ফেরায় ভারতীয় থিঙ্কট্যাঙ্ক৷

ঋদ্ধি ও ঋষভের তুলনা প্রসঙ্গে এবার মুখ খুললেন ভারতীয় দলের ফিল্ডিং কোচ আর শ্রীধর। ঋদ্ধিমানকে বর্তমান ও ঋষভকে ভবিষ্যত বলে উল্লেখ করেন তিনি৷ চোটের জন্য ঋদ্ধি জাতীয় দল থেকে ছিটকে যাওয়ার পর সুযোগ পেয়ে তা কাজে লাগায় দিল্লির উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান ঋষভ৷ ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ায় টেস্টে সেঞ্চুরি করে জাতীয় দলে নিজের জায়গা পাকা করেন তিনি।

ঋষভই প্রথম ভারতীয় উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান, যিনি এই দুই দেশে টেস্টে শতরান করেছেন। তাঁর ব্যাটিং দক্ষতা ভূয়সি প্রশংসা আদায় করে নিলেও উইকেটকিপিংয়ের জন্য বারবার সমালোচিত হয়েছে দিল্লির এই তরুণ৷ ফলে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে সদ্যসমাপ্ত তিন টেস্টের সিরিজে ঋষভের পরিবর্তে ঋদ্ধির উপর ভরসা রেখেছিল ভারতের টিম ম্যানেজমেন্ট। আর সেই আস্থার মর্যাদাও দিয়েছেন বাংলার উইকেটকিপার।

ভিন্নমানের দুই উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যানের তুলনা করতে না-চাইলেও ভারতীয় দলের ফিল্ডিং কোচ আর শ্রীধর বলেন, ঋষভ ও ঋদ্ধিমানের মধ্যে তুলনা করা ঠিক হবে না। তিনি বলেন, ‘দু’জনেরই নিজস্ব শক্তির জায়গা রয়েছে। তাই তুলনা করা ঠিক হবে না। একজন তরুণ। অন্যজন অভিজ্ঞ। ঋষভ হল আমাদের ভবিষ্যৎ কিন্তু ঋদ্ধি হল বর্তমান।’

গত বছরের গোড়ায় দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে চোট পেয়েছিলেন ঋদ্ধি। ফলে প্রায় দু’ বছর জাতীয় দলের বাইরে থাকতে হয় তাঁকে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের দলে ফিরলেও মাঠে নামার সুযোগ হয়নি সদ্য ২৫ বছরে পা-দেওয়া ঋদ্ধির৷ জাতীয় দলে। তবে ঘরের মাঠে প্রোটিয়াদের বিরুদ্ধে টেস্ট ক্রিকেটে প্রত্যাবর্তন ঘটে ঋদ্ধির। প্রত্যাবর্তনে উইকেটকিপিংয়ে বিশেষজ্ঞদের প্রশংসা আদায় করে নেন ঋদ্ধি৷ শ্রীধর বলেন, ‘ঋদ্ধিকে নিয়ে দলের কোনও সংশয় ছিল না। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে সিরিজেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের ধকলের সঙ্গে মানিয়ে নিতে দেখেছিলাম। তার আগে ভারত-এ দলের হয়ে বেশ কয়েকটা ম্যাচ ও খেলেছিল। ভারতের মাটিতে খেলার সময় আমরা সাহার উপরই ভরসা রেখেছি। ও হল আমাদের সেরা উইকেটকিপার।’

প্রোটিয়াদের বিরুদ্ধে সিরিজ শুরুর আগেই ঋদ্ধিকে ‘বিশ্বের সেরা’ উইকেটকিপার হিসেবে চিহ্নিত করেছিলেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহালি৷ টেস্টে প্রথমবার প্রোটিয়াদের হোয়াইটওয়াশ করার পিছনে বড় অবদান ছিল ঋদ্ধির। পুণে টেস্টে অসাধারণ দু’টি ক্যাচ নেন ঋদ্ধি। টিভিতে ধারাভাষ্য দেওয়ার সময় সুনীল গাওস্কর তাঁকে সৈয়দ কিরমানির সঙ্গে তুলনাও করেন।