স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: গুরুতর অসুস্থ এক মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীকে হাসপাতালের বেডে বসেই পরীক্ষা দেওয়ার ব্যবস্থা করল প্রশাসন। অতি দ্রুততার সঙ্গে প্রশাসন বাঁকুড়া টাউন গার্লসের অসুস্থ ওই ছাত্রীর পরীক্ষা দেওয়ার ব্যবস্থা করে দেওয়ায় খুশি পরিবারের লোকেরা।

সূত্রের খবর, বাঁকুড়া টাউন গার্লস হাইস্কুলের মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী রিঙ্কু ঘোষের পরীক্ষার সিট পড়েছিল শহরেরই বড় কালীতলা গার্লস হাইস্কুলে। রবিবার সন্ধ্যায় প্রচণ্ড মাথার যন্ত্রণার জেরে তাকে বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে ভরতি করা হয়। সোমবার মাধ্যমিকের অংক পরীক্ষা থাকায় আদৌ এই ছাত্রী পরীক্ষা দিতে পারবে কি না, তা নিয়ে চিন্তায় পড়ে যান অভিভাবকেরা।

রিঙ্কুও উদ্বিগ্ন হয়ে পড়ে যে অংক পরীক্ষায় সে বসতে পারবে কিনা। পরিবারের তরফে যোগাযোগ করা হয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে। তাঁরা জেলা স্কুল পরিদর্শক (মাধ্যমিক) ও মাধ্যমিক পরীক্ষা নিয়ামকের সঙ্গে দ্রুততার সঙ্গে যোগাযোগ করে হাসপাতালের বেডে বসেই ওই ছাত্রীর পরীক্ষার ব্যবস্থা করে দেন।

বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের ‘ফিমেল সার্জিকেল ওয়ার্ডে’ এদিন যথাসময়ে পৌঁছে যান পথীক্ষকেরা। কড়া নিরাপত্তা বেষ্টনীর মধ্যে হাসপাতালের নির্ধারিত বেডে বসেই পরীক্ষা দেয় ওই পরীক্ষার্থী। এবিষয়ে স্কুল পরিদর্শক (মাধ্যমিক) পঙ্কজ সরকার বলেন, ‘‘ওই ছাত্রীর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভরতি থাকার খবর পেয়ে হাসপাতালেই পরীক্ষা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়।’’
পরীক্ষা সংক্রান্ত বিধিনিষেধ থাকায় ওই পরীক্ষার্থীর সঙ্গে আলাদাভাবে কথা বলা যায়নি।

তবে পরিবারের তরফে লোকেরা প্রশাসন ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের এই উদ্যোগে খুশি। পরিবারের তরফে বলা হয়েছে, প্রশাসন ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এবিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ না নিলে এবার মাধ্যমিকের অংক পরীক্ষা আর দেওয়াই হত না তাঁদের মেয়ে রিঙ্কু ঘোষের। হাসপাতাল সূত্রের খবর: রিঙ্কু এখন অনেকটাই সুস্থ আছেন।