শ্রীনগর: ছেলের সঙ্গে ইদ পালন করার মনোকামনা অপূর্ণ থেকে গেল পরিবারের৷ কিন্তু জঙ্গিদের গুলিতে নিহত জওয়ান ঔরঙ্গজেবের বাবা চান ছেলের হত্যাকারীদের দ্রুত খুঁজে বের করে আনুক সেনা৷ ছেলের মতো পরিণতি যেন তাদের হয়৷ আর সরকার ও সেনা যদি এই কাজ করতে না পারে তাহলে তিনি নিজেই দোষীদের খুঁজে বের করে শাস্তি দেবেন৷

এ দিন ঔরঙ্গজেবের বাবা বলেন, ‘‘আমার ছেলেকে যারা হত্যা করেছে তাদের বিরুদ্ধে কেন ব্যবস্থা নিচ্ছে না কেন্দ্রীয় সরকার? সরকার যদি ৭২ ঘণ্টার মধ্যে কোনও ব্যবস্থা না নেয় তাহলে আমি আমার ছেলের হত্যার বদলা নেব৷’’

ছেলের মতো তিনিও দেশের সেনাবাহিনীতে কর্মরত ছিলেন৷ পরে অবসর নেন৷ ছেলের মৃত্যুতে স্বভাবতই ভেঙে পড়েছে গোটা পরিবার৷ তবে তিনি জানান, ঔরঙ্গজেবের মৃত্যু ভারতীয় সেনাবাহিনীর কাছেও একটা বড় ধাক্কা৷ এত বছরেও কেন উপত্যকাকে জঙ্গিমুক্ত করা গেল না তা নিয়েও ক্ষোভ প্রকাশ পায় তাঁর গলায়৷

তিনি বলেন, ‘‘যখন কেন্দ্রে নরেন্দ্র মোদী সরকার আসে তখন মনে হয়েছিল কাশ্মীরের অবস্থার উন্নতি হবে৷ কিন্তু পরিস্থিতির কোনও পরিবর্তন হয়নি৷ আগে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের কাশ্মীর থেকে তাড়াতে হবে৷ সেনা ও পুলিশকে পুরোদমে জঙ্গি দমন অভিযান চালিয়ে উপত্যকাকে জঙ্গিমুক্ত করতে হবে৷ এ দিন ছেলের মৃত্যু নিয়ে যে রাজনীতি হচ্ছে তা নিয়ে বিরক্তি প্রকাশ করেন৷ জানান, শহিদদের নিয়ে যারা রাজনীতি করছেন তারা আসলে পাকিস্তানের প্রতি সহানুভূতিশীল৷

বুধবার বাড়ি ফেরার সময় ঔরঙ্গজেবকে বন্দুকের নলে অপহরণ করে জঙ্গিরা৷ এর পর বৃহস্পতিবার সোপিয়ানে তাঁর গুলিবিদ্ধ নিথর দেহ পাওয়া যায়৷ জানা যায় গত মে মাসে ঔরঙ্গজেব কুখ্যাত হিজবুল মুজাহিদিন জঙ্গি সমীর টাইগার এনকাউন্টারে জড়িত ছিলেন৷ সেই হত্যার বদলা নিতে জঙ্গিরা তাঁকে অপহরণ করে খুন করে৷ এ দিন নিহত জওয়ানের শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়৷ পরিবারের সদস্যরা ছাড়াও শ’য়ে শ’য়ে গ্রামবাসী তাতে যোগ দেন৷