মুম্বই: সুশান্তের মৃত্যুর পর থেকে বলিউডে একের পর এক ট্যুইস্ট। নেপোটিজম থেকে এবার মাদক পাচার। মাদক পাচারের মামলাতেই রিয়া ও তাঁর ভাই শৌভিককে গ্রেফতার করেছেন নারকোটিকস ব্যুরো।

এই প্রসঙ্গে নারকোটিকস ব্যুরোর ডিজি রাকেশ আস্তানা বলেন, রিয়া চক্রবর্তীদের জেরা করে মাদক পাচার চক্র খুঁজে বের করা হচ্ছে। আস্তানা জানিয়েছেন, তদন্ত করতে গিয়ে গোয়েন্দারা দেখেছে যে, এর সঙ্গে আন্তর্জাতিক স্তরের চক্রের যোগ আছে।

তিনি জানিয়েছেন, দুবাইয়ের পাচারকারীদের কিংবা জঙ্গি সংগঠনগুলির মাধ্যমে সিস্টেমেটিকভাবে ড্রাগ ঢুকছে ভারতে। রেভ পার্টির জন্য ড্রাগ আসছে বলেও জানান তিনি। তাঁর দাবি, মারিজুয়ানার দাম কেজি প্রতি ৮ লক্ষ টাকা।

আস্তানা আরও ব্যাখ্যা করেন, রিয়াদের মত স্টারদের রোল মডেল হিসেবে দেখা হয়। তাই তাদের এই পাচার চক্রে ঢোকালে সুবিধা হয় পাচারকারীদের।

রিয়া চক্রবর্তী এই মুহূর্তে তিনি মুম্বইয়ের বাইকুল্লা জেলে রয়েছেন। মাদক যোগের জন্য নারকোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি) গ্রেফতার করেছে অভিনেত্রীকে। এনসিবির নজরে বলিউডের আরও তিন অভিনেত্রী – সারা আলি খান, রকুল প্রীত এবং সিমন খামবাট্টা। রিয়া চক্রবর্তী এনসিবির জিজ্ঞাসাবাদের সময় এই তিনজন অভিনেত্রীর নাম নিয়েছেন।

সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন থেকে জানা যাচ্ছে, রিয়া জানিয়েছেন, সারা, রকুল এবং সিমন মাদক নিয়েছেন। এনসিবিকে দেওয়া ২০ পাতার লম্বা বিবৃতিতে রিয়া এই ৩ অভিনেত্রীর নাম বিশেষ করে উল্লেখ করেছেন। জানা যাচ্ছে এই মুহূর্তে এনসিবির নজরে রয়েছে বলিউডের A, B ও C গ্রেট অভিনেতারা, যাদের বিরুদ্ধে মাদক নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

বিগত কয়েক দিনেই জানা গিয়েছিল যে রিয়া বেশ কয়েকজন বলিউড অভিনেতাদের নাম উল্লেখ করেছেন জেরার মুখে। প্রায় ২৫ জন বলিউড তারকাদের আগামী কয়েক দিনে এক এক করে এনসিবি তলব করবে বলে জানা যাচ্ছিল। এদের মধ্যে রয়েছেন পরিচালক, অভিনেতা, কাস্টিং ডিরেক্টর, প্রযোজক সহ আরো অনেকে।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।