মুম্বই- অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তী কে আজ দ্বিতীয় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হলো মুম্বইয়ের ইডি অফিসে। আজ সোমবার বেলা ১১টায় পরিবার সমেত অফিসে হাজিরা দেন রিয়া চক্রবর্তী। সুশান্ত সিং রাজপুতের ঘটনায় মানি লন্ডারিং এর কোনও মামলা রয়েছে কিনা সেই বিষয়ে খতিয়ে দেখছে ইডি। সেই বিষয়ে আজ রিয়া ও তাঁর পরিবারকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

রিয়া চক্রবর্তীর আয়, বিনিয়োগ ব্যবসা এবং পেশাদারী নানারকম লেনদেন নিয়েও জিজ্ঞাসাবাদ করেছে ইডি। বিহার পুলিশের কাছে সুশান্ত সিং রাজপুতের পরিবার অভিযোগ করেছেন যে সুশান্তের অ্যাকাউন্ট থেকে রিয়া ১৫ কোটি টাকা তুলে নিয়েছেন। তাঁর বিরুদ্ধে আত্মহত্যা প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে। মুম্বাইয়ের খার এলাকায় এবং নভি মুম্বইতে রিয়া চক্রবর্তীর দুটি প্রপার্টি রয়েছে। পিটিআই সূত্রে জানা যাচ্ছে এই প্রপার্টি গুলিকে খতিয়ে দেখছে ইডি।

রিয়া চক্রবর্তীর আয় থেকে খরচ এবং বিনিয়োগের পরিমাণ অনেক বেশি। এই বিষয়টিও নজরে এসেছে ইডির। কী করে এত কম আয় হয়েও এত বেশি খরচ করতেন রিয়া সে বিষয়টির উপর নজর দেওয়া হচ্ছে। আজ সোমবার রিয়ার সঙ্গে ইডি অফিসে হাজিরা দেন তার ভাই সৌভিক চক্রবর্তী ও বাবা ইন্দ্রজিৎ চক্রবর্তী।

রিয়া চক্রবর্তীর বিজনেস ম্যানেজার এদিন হাজির হন সেখানে। এরপরে বেলা ২.৩০ মিনিট নাগাদ ইডি অফিসে আসেন সুশান্তের রুমমেট সিদ্ধার্থ পিঠানি। এদের প্রত্যেককেই গত ৭ অগাস্ট জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় ইডি অফিসে। সৌভিক চক্রবর্তীকে টানা ২২ ঘন্টা ধরে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় এবং রিয়াকে ৮ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় বলে জানা গিয়েছে।

কিন্তু আজ আবার তাদের দ্বিতীয় দফায় জেরা করা হয়। রিয়া চক্রবর্তীর আইনজীবী সতীশ মনশিন্দে জানান যে রিয়া এই তদন্তে সম্পূর্ণ সহযোগিতা করবেন। পিটিআই সূত্রে জানা যাচ্ছে ইডির নজরে এসেছে যে সুশান্তের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে সৌভিক চক্রবর্তীর ব্যাংক অ্যাকাউন্টের বেশ কিছু টাকা ট্রান্সফার করা হয়েছে। সৌভিক এর ব্যাংক স্টেটমেন্ট দেখে এগুলি জানতে পারা গিয়েছে।

সুশান্ত সিং রাজপুত দুটি কোম্পানি খুলেছিলেন যার সঙ্গে জড়িত ছিলেন রিয়া চক্রবর্তী ও তার ভাই সৌভিক চক্রবর্তী। দুটি কোম্পানিতে রিয়া চক্রবর্তী ও তার ভাই ডিরেক্টর হিসেবে ছিলেন।

প্রসঙ্গত রিয়া চক্রবর্তী এখন সহযোগিতা করলেও প্রথমে এই মামলাটি বিহার থেকে মহারাষ্ট্র স্থানান্তরিত করার জন্য আবেদন করেছিলেন এবং সুপ্রিম কোর্টের কাছে স্থগিতাদেশ চেয়ে ছিলেন। কিন্তু রিয়া চক্রবর্তীর দুটি আবেদনই খারিজ করে দেয় সুপ্রিম কোর্ট। মানিলন্ডারিং ছাড়াও এর সিবিআই এই ঘটনার তদন্ত করছে জোর কদমে।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও